করোনা শঙ্কায় ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা রাবি ও রুয়েট শিক্ষার্থীদের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাস শঙ্কায় অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষার্থীরা। একই কারণে ক্লাস পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। গতকাল রোববার শিক্ষার্থীরা এ ঘোষণা দেন।
রুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের ষষ্ঠ সেমিস্টারের শিক্ষার্থী মাঈন উদ্দীন বলেন, করোনা ভাইরাস শঙ্কায় সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য আমরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করেছি। করোনা আতঙ্ক না কাটা পর্যন্ত আমরা ক্লাসে ফিরবো না।
এ বিষয়ে রুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. রবিউল আওয়াল বলেন, শিক্ষার্থীদের একটি অংশ ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে। আমরা এখনো বন্ধের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেইনি। রুটিন অনুযায়ী বিশ^বিদ্যালয়ের কাজ চলবে।
এদিকে করোনা ভাইরাস শঙ্কায় ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। গতকাল রোববার দুপুরে বিভাগের বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থীরা বসে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের এ সিদ্ধান্ত নেয়। এছাড়াও পরিসংখ্যান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের খবর পাওয়া গেছে।
গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আসিফ আহমেদ দিগন্ত বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় আমরা বিভাগে শিক্ষার্থীরা এক সঙ্গে বসে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আমরা ক্লাস-পরীক্ষা অংশগ্রহণ করবো না। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করার খবর পাওয়া গেছে।
তবে ক্লাস বর্জনের বিষয়টি শিক্ষার্থীদের নিজস্ব সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল মামুন ও পরিসংখ্যান বিভাগের সভাপতি গোলাম হোসেন।
এ বিষয়ে রাবির প্রক্টর ও ভারপ্রাপ্ত ছাত্রউপদেষ্টা অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধের বিষয়ে প্রশাসন কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। শিক্ষার্থীরা নিজেদের থেকে বর্জন করেছেন। ওপর মহল থেকে নির্দেশনা আসলে ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা করা হবে।
এদিকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ক্যাম্পাস বন্ধের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে রাবি’র শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ক্যাম্পাসে অনেক শিক্ষার্থী আছে। যারা ক্যাফেটেরিয়া, টুকিটাকিসহ বিভিন্ন দোকানে এক সাথে খাবার খায়, আড্ডা দেয়ে। ভাইরাসটি কোনভাবে একজনের মধ্যে প্রবেশ করলে অনেকের মাঝে তা ছড়িয়ে পড়বে। এছাড়া এক সঙ্গে শতাধিক ক্লাস করছি। যদি এই ভাইরাসে একজন আক্রান্ত হয় তাহলে দ্রæত আমাদের মাঝে তা ছড়িয়ে পড়বে। তাই বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস যেন দ্রæত বন্ধ হয় এটি চাই।
এসময় শিক্ষার্থীদের হাতে ‘করোনা মোকাবেলায় রাবির সক্ষমতা শূন্য শতাংশ’, ‘ক্যাম্পাস এখনো বন্ধ হয়নি কারণ, প্রশাসন চায় আমার করোনা হোক’, ‘মাস্ক ও প্রাথমিক সচেতনতা কি যথেষ্ট’, ‘রাবি ক্যাম্পাস বন্ধ হোক’ এমন লেখা সংবলিত বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড দেখা যায়। কর্মসূচিতে বিভিন্ন বিভাগের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

শর্টলিংকঃ