করোনা প্রতিরোধে চার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর জরুরি মনোযোগ চায় ওয়ার্কার্স পার্টি

সোনালী ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নিয়োজিত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে চারটি বিষয়ের প্রতি জরুরি মনোযোগ দেওয়া ও দ্রæত ব্যবস্থা গ্রহণের আহŸান জানিয়েছে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো। গতকাল সোমবার দলের কেন্দ্রীয় নেতা কামরুল আহসান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়েছে।
বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেশে অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতে শ্রমিক ও শ্রমজীবী মানুষের সংখ্যা শতকরা ৮৫ ভাগ। এরা তাদের আয়ের অর্থ দিয়ে নিজেরাই বাঁচে না, গ্রামীণ অর্থনীতিকেও সচল রাখে। এসব অপ্রাতিষ্ঠানিক শ্রমিক ও শ্রমজীবীদের জন্য আপৎকালীন বিশেষ তহবিল গঠন, জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে তা তাদের মাঝে দ্রæত বিতরণের ব্যবস্থা করতে হবে।
বিবৃতিতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশে এখন বহু করোনাভাইরাস রোগী শনাক্তকরণ ছাড়াই মৃত্যুবরণ করছে। তাদের দাফন নিয়েও জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে এই ভাইরাস টেস্ট করতে প্রতিষ্ঠিত বেসরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টার, বিএসএমএমইউসহ সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে অনুমতি দেওয়া উচিৎ।
এ ছাড়া করোনাভাইরাস পরীক্ষার কাজে ইপিডোমিলিজিস্ট, ভাইরোলজিস্ট ও মাইক্রোবায়োলজিস্টদের সম্পৃক্ত করা এবং সেভাবে জাতীয় কমিটি পুনর্বিন্যাস্ত করে তা প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি নেতৃত্বে নিয়ে আসা উচিৎ। বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, রাজনৈতিক দলগুলোই জনমতের প্রতিনিধিত্বকারী। প্রশাসনের ওপর নির্ভর না করে সব রাজনৈতিক দল, এমপি ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করা, বিশেষ করে দিন আনা দিন খাওয়া মানুষগুলোকে বাঁচাতে তাদের মূল দায়িত্ব দিতে হবে।

শর্টলিংকঃ