করোনা প্রতিরোধে কঠোর হচ্ছে রাজশাহীর প্রশাসন

স্টাফ রিপোর্টার: করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে কঠোর হচ্ছে রাজশাহীর প্রশাসন। সরকারি বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলেই নেয়া হচ্ছে ব্যবস্থা। আর যারা হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন তাদের জ্বর, সর্দি-কাঁশি নিয়ে মসজিদ বা অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়ে না যেতে অনুরোধ করেছেন রাজশাহী জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক। নির্দেশনা উপেক্ষা করে কেউ মসজিদ কিংবা ধর্মীয় উপাসনালয়ে গেলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন তিনি।
এদিকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু আসলাম জানিয়েছেন, কোয়ারেন্টাইন অমান্য করায় শুক্রবার রাজশাহীতে দুইজনকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া বাগমারা উপজেলায় নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে জনসমাগম করায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রাজশাহীতে বন্ধ করা হয়েছে পাঁচটি কমিউনিটি সেন্টার। বিনোদনকেন্দ্রগুলোতেও জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়া অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রি করায় দুইজনকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
অন্যদিকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজশাহী জেলা প্রশাসকের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এ বিষয়ে নির্দেশনা জারি করেন হামিদুল হক। জানতে চাইলে জেলা প্রশাসক হামিদুল হক বলেন, বৃহস্পতিবার থেকে আমরা জেলার সকল বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ করে দিয়েছি। রাজশাহীর পদ্মার আই-বাঁধ, টি-বাঁধ, পুঠিয়া রাজবাড়িতে পর্যটকদের যাতায়াতে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে।
জেলা প্রশাসক আরও বলেন, শুক্রবার পবিত্র জুম্মা মুবারক। আমরা মুসলমানরা এ দিনটাতে সবাই মসজিদে গিয়ে একসাথে নামাজ পড়ার চেষ্টা করি। কিন্তু বাংলাদেশ তথা গোটা বিশ্বে যে পরিস্থিতি তাতে ধর্মীয় বিধান অনুসরণ করেই আমাদের কিছু কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে। এজন্য বৃহৎ স্বার্থে যারা হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন এবং সর্দি-জ্বর বা করোনাভাইরাসের উপসর্গ রয়েছে এমন রোগে ভুগছেন, তারা মসজিদ এবং অন্যান্য উপাসনালয়ে না গিয়ে বাড়িতে অবস্থান করুন।
কোচিং ও প্রাইভেট সেন্টার বন্ধ করা হলেও গোপনে সেগুলো চালানো হচ্ছে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, এমন পরিস্থিতিতে সকল অভিভাবকদের প্রতি সরকারের প্রতিনিধিদের আহŸান-আপনারা সন্তানদের কোচিংয়ে পাঠাবেন না। তারপরও যদি কেউ নিষেধাজ্ঞা না মেনে চলে তবে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এদিকে বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা থেকে রাজশাহী থেকে দূরপাল্লার সকল রুটে যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন। তবে যে বাসগুলো ঢাকা, বরিশাল, খুলনা, চট্টগ্রাম থেকে রাজশাহীতে ঢুকেছিল, রাতে সেগুলো পুনরায় গন্তব্যের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

শর্টলিংকঃ