করোনাভাইরাসে আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক হোন: মেয়র

স্টাফ রিপোর্টার: নোভেল করোনা ভাইরাসে আতঙ্কিত না হয়ে সবাইকে সতর্ক হওয়ার আহŸান জানিয়েছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
গতকাল বুধবার নগর ভবনের সিটি হল সভা কক্ষে নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দের সমন্বয়ে অবহিতকরণ সভায় এই আহŸান জানান মেয়র।
সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র বলেন, করোনা ভাইরাস বিশে^র বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এরমধ্যে বাংলাদেশেও এসেছে। যেহেতু করোনা ভাইরাসের এখন পর্যন্ত কোন প্রতিষেধক তৈরি হয়নি, সেজন্য এটি প্রতিরোধে জনসচেতনার বিকল্প নেই। জনসচেতনতা সৃষ্টিতে লিফলেট বিতরণ, স্বাস্থ্যকর্মীদের মাধ্যমে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সচেতনতা সৃষ্টির উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আমি রাজশাহী মহানগরবাসীসহ সবাইকে করোনা ভাইরাসে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন ও সতর্ক হওয়ার আহŸান জানাচ্ছি। এ সময় মেয়র এ ব্যাপারে মানুষকে সচেতন করতে কাউন্সিলরবৃন্দ, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দিক-নির্দেশনা প্রদান করেন।
করোনাভাইরাস কী, কিভাবে ছড়ায়, লক্ষণসূমহ এবং প্রতিরোধের উপায়সমূহের ব্যাপারে সভায় প্রেজেন্ট্রেশন দেন রাসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফ এ এম আঞ্জুমান আরা বেগম। তিনি জানান, আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি-কাশির মাধ্যমে, আক্রান্ত ব্যক্তি স্পর্শ করলে এবং পশু ও পাখির মাধ্যমে করোনা ভাইরাস ছড়ায়। করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের লক্ষণসমূহ হচ্ছে, সর্দি-কাশি, জ¦র, মাথাব্যাথা, মারাত্মক পর্যায়ে অজ্ঞান হয়ে যাওয়া, শিশু, বৃদ্ধ ও দুর্বল ব্যক্তিদের ডায়রিয়া, নিউমোনিয়া, ব্রংকাইটিসও হতে পারে। তিনি আরও জানান, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সাবান ও পানি দিয়ে হাত ধোয়া, অপরিষ্কার হাত বা হাত না ধুয়ে চোখ বা অপ্রয়োজনে চোখ, নাক ও মুখ স্পর্শ না করা, কাজের জায়গা, ব্যবহারের কাপড় ইত্যাদি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা, হাঁচি কাশি দেয়ার সময় মুখ ঢেকে রাখা, অসুস্থ পশু ও পাখির সংস্পর্শে না আসা, মাছ, মাংস ভালোভাবে রান্না করে খাওয়া, আইসক্রিম ও ঠাÐা খাবার না খাওয়া, সাধারণ ঠাÐা লাগা, সর্দি-কাশিতে ভূগছেন এমন ব্যক্তি থেকে দূরে থাকা, সর্দি-কাশির হাত থেকে বাঁচতে এবং পরিবেশের ধুলোবালি থেকে সুরক্ষিত থাকতে মাস্ক ব্যবহার করা, জরুরি প্রয়োজন ব্যতীত অন্য যে কোন দেশ ভ্রমণ থেকে বিরত থাকতে হবে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, প্যানেল মেয়র-২ ও ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, প্যানেল মেয়র-৩ তাহেরা খাতুন মিলি, সাবেক ভারপাপ্ত মেয়র ও ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজাউন নবী, সাবেক দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র ও ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযিমসহ অন্যান্য কাউন্সিলরবৃন্দ, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এ বি এম শরীফ উদ্দিন, সচিব আবু হায়াত মো: রহমতুল্লাহ, প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক, মেয়রের একান্ত সচিব আলমগীর কবির, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহান, বাজেট কাম হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম খান, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মো: মামুন ডলারসহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শর্টলিংকঃ