ওরশে নিষেধ করায় পুলিশের ওপর হামলা, গ্রেপ্তার ২৪

বগুড়া প্রতিনিধি: কোরোনা ভাইরাসের কারণে ওরশ করতে নিষেধ করায় বগুড়ায় পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মারপিটে আহত হয়েছেন ইন্সপেক্টর, এএসআইসহ কমপক্ষে ৩ পুলিশ সদস্য।
ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাতে শহরের নামাজগড় এলাকায়। পুলিশ এ ঘটনায় ২৪ জনকে আটক করেছে।
স’ানীয় সূত্র ও পুলিশের একটি দায়িত্বশীল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানায়, গত বুধবার রাতে শহরের নামাজগড় সুলতানগঞ্জপাড়া এলাকায় ভাষা সৈনিক মরহুম গাজীউর রহমানের বাড়িতে স’ানীয় এবং কথিত পীর সিরাজুল হক চিসতীর মৃত্যুদিন উপলক্ষে সেখানে ওরশ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। সেখানে গান বাজনা দোয়া মাহফিল উপলৰে গর্ব জবাই করে আয়োজকরা। সন্ধ্যার পর থেকেই সেখানে ভক্তরা আসতে শুর্ব করে। করোনা ভাইরাসের কারণে স’ানীয় পুলিশ দু’দফা সমাগম না করার জন্য নিষেধ করে যায়।
কিন’ প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞাকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে আয়োজকরা স’ানীয়ভাবে ওরশ আয়োজন করায় রাত সাড়ে ৮টার দিকে বিষয়টি স’ানীয় উপশহর ফাঁড়ি পুলিশ আবারো তাদের নিষেধ করে। এতে ক্ষুব্ধ হয় সেখানকার বেশ কিছু অতি উৎসাহী যুবক। তারা এসময় স’ানীয় উপশহর ফাঁড়ী পুলিশের ওপর হামলা করে তাদের মারধোর করে। এতে আহত হয় কমপক্ষে ৩ পুলিশ সদস্য। এর এক পর্যায়ে তারা উপশহর ফাঁড়ী পুলিশের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর নান্নু খান ও এএসআই জাহিদকে আটক রেখে বেধড়ক ভাবে মারপিট করে । পরে খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সদস্যরা সেখানে পৌঁছে ইন্সপেক্টর নান্নুখানসহ অবর্বদ্ধ পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার ও অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে এলাকার সাবেক ২ জন ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ মোট ২৪ জনকে আটক করে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বগুড়া সদর পুলিশের অফিসার ইনচার্জ এসএম বদিউজ্জামান। আহত পুলিশ সদস্যদের বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সরকারি বাধা প্রদান, পুলিশ সদস্যদের মারপিট করার অপরাধে গ্রেপ্তার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়। পুলিশের এ মামলায় এজাহার নামীয় ২৪ জনসহ আরও শতাধিক অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

শর্টলিংকঃ