একদিনের জন্য হলেও জাতীয় দলে খেলতে চান আশরাফুল

অনলাইন ডেস্ক: ২০১৮ সালে আগস্টে পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফিরেছেন একসময়কার মহাতারকা মোহাম্মদ আশরাফুল। ফিক্সিংয়ের কালিমা গায়ে মাখিয়ে তিনি দেশের ক্রিকেটের বিতর্কিত এক চরিত্র। কিন্তু এখনই থেমে যেতে চান না এই তারকা। তিনি আবারো জাতীয় দলে ফিরতে চান।

অন্তত একদিনের জন্য হলে খেলতে চান জাতীয় দলে। আর এ জন্য রীতিমতো কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন আশরাফুল।

ফিটনেসে বেশ উন্নতি করেছেন আশরাফুল। আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের করা বিপ টেস্টে ১১.৪ পয়েন্ট পেয়ে পাস করেছেন তিনি। পরে প্লেয়ার্স ড্রাফট থেকে তাকে ষষ্ঠ ডাকে কিনে নিয়েছে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী। এর আগে বিপিএলেও খেলেছেন আশরাফুল। তবে এতেই তৃপ্ত নন তিনি। আবারও জাতীয় দলে খেলাই তার মূল লক্ষ্য। বিশেষ করে ভক্ত-সমর্থকদের ভালোবাসার প্রতিদান দেয়ার জন্য হলেও অন্তত একটি ম্যাচ খেলতে চান জাতীয় দলে। সিনিয়র ক্রীড়া সাংবাদিক নোমান মোহাম্মদের ইউটিউব চ্যানেল নট আউট নোমানে সাক্ষাৎকারে এ কথা জানিয়েছেন আশরাফুল।

তেঘোরিয়া মাঠে অনুশীলনের ফাঁকে দেয়া সেই সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘আমার স্বপ্ন কিন্তু একটাই, আবার বাংলাদেশের হয়ে খেলব। আমার এ স্বপ্নের পেছনে বড় শক্তি হলো আমার ভক্তরা। কারণ দেশে ও দেশের বাইরে আমার অনেক সমর্থক এখনও বিশ্বাস করে যে, দেশকে আমি আরও সার্ভিস দিতে পারব। আমিও বিশ্বাস করি যে, অন্তত একদিন হলেও খেলব বাংলাদেশ দলে।’

আশরাফুল যোগ করেন, ‘সেলক্ষ্যে প্রস্তুতি নিতেই আমি প্রতিদিন… আমার বাসা বনশ্রী, সেখান থেকে ধানমন্ডি গিয়ে দৈনিক ৩-৪ ঘণ্টা জিম করেছি। আসলে আমি গত ৭-৮ বছর ধরে দেশ ও দেশের বাইরে সে সমর্থনটা পাচ্ছি, তাদের জন্য হলেও যেন আমি একটা ম্যাচ খেলতে পারি। সেজন্যই আসলে আমি কষ্ট করে যাচ্ছি।’

বারবার অন্তত এক ম্যাচের কথা বললেও, আশরাফুলের বিশ্বাস তিনি এখনও ২-৩ বছর জাতীয় দলে খেলতে পারবেন। তার ভাষ্য,’একটা ম্যাচ তো আসলে স্রেফ বলার জন্য। আমি বিশ্বাস করি, আমি দেশকে অন্তত আরও ২-৩ বছর দেশকে সার্ভিস দিতে পারব।’

ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরার নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ২০১৭-১৮ মৌসুমের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের আসরে পাঁচটি সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে রেকর্ড গড়েছিলেন আশরাফুল। তখনও তিনি বলেননি যে, জাতীয় দলের জন্য খেলার জন্য প্রস্তুত আছেন। তবে এখন ফিটনেসের উন্নতি ঘটিয়ে আশরাফুলের বিশ্বাস, জাতীয় দলে খেলতে প্রস্তুত তিনি।

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ