আলাদা হয়ে যাবে এই ভয়ে বিয়েই করেননি সাতক্ষীরার দুই ভাই

অনলাইন ডেস্ক: দুই ভাইয়ের মধ্যে এমন ভালবাসা সিনেমাকেও হার মানাবে। কিন্তু এমনটিই ঘটেছে বাস্তবে। সাতক্ষীরার তালা উপজেলার দুই ভাই মৃণাল কান্তি বসু ও দিপক কান্তি বসু। দুই ভাই আলাদা হয়ে পড়বেন এমন আশঙ্কায় বিয়েই করেননি। অর্ধশতাব্দীরও বেশি সময় ধরে একসঙ্গে পথ চলছেন তারা।

মৃণাল কান্তি বসু ও দিপক কান্তি বসুর পত্রিক বাড়ি খুলনার পাইকগাছার হরিঢালী গ্রামে হলেও ৩০ বছর ধরে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার কানাইদিয়া গ্রামে বসবাস করছেন তারা। নিজেদের পৈত্রিক জমি উদ্ধারের জন্য তারা মামলা চালাতে নিয়মিত পায়ে হেঁটে খুলনাসহ বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করেন।

জানা গেছে, মৃণাল কান্তি বসু ও দিপক কান্তি বসুর পূর্বপুরুষরা জমিদার ছিলেন। পোশাক-পরিচ্ছদ, আচরণ-চলনে রয়েছে সেই আভিজাত্য। ছোটবেলা থেকেই দুই ভাই সংসার বিবাগী। নিজের বলতে হাতের দুটি ব্যাগ ও পরিধেয় বস্ত্র। কখনো কখনো সান্ত্বনা পেতে ছুটে যান পৈত্রিক নিবাস হরিঢালীতে।

স্থানীয় শিক্ষক সমীরণ বলেন, এক সময় সাহেব (মৃণাল) ভারতে রেলওয়েতে চাকুরি করতেন। প্রায় ৫ বছর পর চাকুরি ছেড়ে গ্রামে এসে আর ফিরে যায়নি। হরিঢালী পুলিশ ক্যাম্পের পাশে তাদের জায়গা-জমি ছিল। পরবর্তীতে সেটা স্থানীয় প্রভাবশালীরা দখলে নিয়ে নিয়েছে। এ নিয়ে এখনো মৃণাল-দিপকরা খুলনা জজ কোর্টে মামলা চালিয়ে যাচ্ছেন।

হরিঢালী ইউপি চেয়ারম্যান আবু জাফর সিদ্দিকী রাজু বলেন, আমার আব্বা যখন চেয়ারম্যান ছিল তখন থেকে শুনছি দুই ভাইয়ের পৈত্রিক জমি নিয়ে ঝামেলা চলছে। এ নিয়ে ঐ সময় অনেক দেন-দরবারও হয়েছে। তবে দীর্ঘ কালক্ষেপণে জমির কাগজপত্র তৈরি হয়ে এরইমধ্যে তা বেচাকেনাও হয়ে গেছে।

সোনালী/আরআর

শর্টলিংকঃ