- সোনালী সংবাদ - https://sonalisangbad.com -

আত্রাই ও সিংড়ায় ঘূর্ণিঝড়ে ছয় শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

সোনালী ডেস্ক: নওগাঁর আত্রাই উপজেলার দুইটি গ্রামে ও নাটোরের সিংড়া উপজেলার একটি গ্রামে ঘুর্ণিঝড়ে প্রায় ছয় শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

আত্রাই প্রতিনিধি জানান, নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় ৫ মিনিটের ঝড়ে দুইটি গ্রামের ছয় শতাধিক ঘড়বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এঘটনায় তিনজন আহত হয়েছে। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার পাঁচুপুর ইউনিয়নের জগদাশ গ্রাম ও পার্শ্ববর্তী বিশা ইউনিয়নের ইসলামগাঁথী গ্রামের ওপর দিয়ে আকস্মিক এ ঘূুর্র্ণিঝড় বয়ে যায়। বুধবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সানাউল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যার পরে উত্তর দিক থেকে প্রচণ্ড বেগে ঘূর্ণিঝড় এসে দক্ষিণে উপজেলার পাঁচুপুর ইউনিয়নের জগদাশ গ্রাম ও পার্শ্ববতী ইসলামগাতী গ্রামের উপর দিয়ে চলে যায়। প্রায় পাঁচ মিনিটের এ ঘূর্ণিঝড়ে দুই গ্রামের ছয় শতাধিক কাঁচাপাকা ঘরবাড়ি বিধস্ত হয়েছে। অনেকের ঘরের টিনের চাল উড়ে গেছে ও ইটের ঘরের প্রাচীর ভেঙে গেছে। এ ছাড়াও বিদ্যুতের কয়েকটি খুঁটি উপড়ে যাওয়ায় ঘটনার পর থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

রাত থেকে বিধস্ত এলাকাবাসী গুড়িগুড়ি বৃষ্টি মাথায় খোলা আকাশে নিচে অবস্থান করছে। এছাড়া গাছপালা ভেঙে ও উপড়ে অনেক বাড়ির উপর পড়েছে। এসময় বাড়িতে থাকা জগদাস গ্রামের আলিমুদ্দিন (২৬) ও জালাল উদ্দিনসহ (৬০) আরও দুই শিশু আহত হয়। আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। রাস্তার উপর গাছপালা ভেঙে পড়ায় আত্রাই থেকে সিংড়া সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

পরে উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থল গিয়ে গাছগুলো অপসারণ করে যোগাযোগ স্বাভাবিক করে।

আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার সানাউল ইসলাম জানান, ঝড়ে দুই গ্রামে ৬ শতাধিক বাড়িঘর বিধস্ত হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা তৈরী করা হচ্ছে। বিশেষ করে টিনের চালার ঘরগুলো বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। ইতোমধ্যে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে শুকনো খাবার প্যাকেট বিতরণ ও ত্রাণের চাল দেয়া হচ্ছে।

সিংড়া প্রতিনিধি জানান, নাটোরের সিংড়া উপজেলার ডাহিয়া ইউনিয়নের লালুয়া পাঁচপাকিয়া গ্রামে মঙ্গলবার রাত ৮ টার সময় হঠাৎ ঘূর্ণিঝড়ে ৩০ টি ঘরবাড়ি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

ঝড়ে ঘরের চালা উড়ে গেছে, গাছপালা ভেঙে গেছে। তবে কেউ হতাহত হয়নি। ডাহিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম মৃধা জানান, মঙ্গলবার রাতে আচমকা ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সরেজমিন পরিদর্শন করে তালিকা প্রনয়ণ করা হচ্ছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন জানান, প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপির নির্দেশনায় ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা সংগ্রহ করা হয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে চাল, ডালসহ শুকনো খাবার দেয়া হচ্ছে। আরও সহায়তা প্রদানে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে তালিকা প্রেরণে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

সোনালী/এমই