অস্ত্রের মুখে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ

অনলাইন ডেস্ক:

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় এক প্রবাসীর স্ত্রীকে (২৯) অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ ও এর ভিডিও ধারণের ঘটনায় মুজিবুল রহমান শরীফ (৩২) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ বুধবার দুপুরে নির্যাতিতা গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। এর আগে বুধবার ভোরে উপজেলার নোয়াখলা ইউনিয়নে ওই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। গ্রেপ্তার শরীফ এলাকার একজন চিহিৃত সন্ত্রাসী বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ওই নারী তার শশুরবাড়িতে দুই সন্তানকে নিয়ে নিজ কক্ষে ঘুমিয়েছিলেন। আজ ভোরে শরীফ তার ঘরে ঢুকে ওই গৃহবধূর মুখ চেপে ধরে ছুরি দেখিয়ে তাকে বিবস্ত্র করেন।

এ সময় ভুক্তভোগীর ছেলে (৪) ও মেয়ের (১০) ঘুম ভেঙে গেলে শরীফ তাদেরকে হত্যার হুমকি দিয়ে অন্য একটি কক্ষে নিয়ে আটকে রাখেন। এরপর ওই নারীকে ধর্ষণ করেন তিনি।

ধর্ষণের সময় ভুক্তভোগী নারীকে মারধরও করেন শরীফ। ধর্ষণের পর নির্যাতিতা নারীকে বিবস্ত্র করে নিজের ব্যবহৃত ফোনে ছবি তুলে ও ভিডিও চিত্র ধারণ করে নিয়ে যান তিনি। পরে এ ঘটনায় বুধবার দুপুরে ভুক্তভোগী প্রবাসীর স্ত্রী তার দুজন আত্মীয়কে নিয়ে চাটখিল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে সন্ত্রাসী শরীফকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ওই গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে তাকে ২২ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ডের জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে।’

ওসি আরও বলেন, ‘গ্রেপ্তার শরীফের বিরুদ্ধে চাটখিল থানায় অস্ত্র, ডাকাতির প্রস্তুতি, মারামরিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপের ঘটনায় আটটি মামলা রয়েছে।’ -দৈনিক আমাদের সময়

সোনালী সংবাদ/এইচ.এ

শর্টলিংকঃ