অনিশ্চয়তায় বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর

অনলাইন ডেস্ক: করোনায় স্থবির দেশের ক্রীড়াঙ্গন। দীর্ঘ বিরতির পর শ্রীলঙ্কা সফর দিয়েই শুরু হওয়ার কথা টাইগারদের বাইশ গজে ফেরা। কিন্তু শ্রীলঙ্কা বোর্ডের দেওয়া কঠিন শর্তে মেনে সফর করতে রাজি না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। এমন অবস্থায় অনিশ্চয়তায় বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কার সফর।

শ্রীলঙ্কার চাওয়া বাংলাদেশ থেকে যাওয়া ক্রিকেটারদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। তবে বিসিবির বক্তব্য হচ্ছে, এমন শর্ত মানা সম্ভব না। এরপর দুই বোর্ড থেকে ভিন্ন ভিন্ন প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। কিন্তু চূড়ান্ত হচ্ছে না কোনোটাই। নতুন করে আজ শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানালেন, বাংলাদেশ যদি শ্রীলঙ্কা সফরে আসতে চায় তাহলে অবশ্যই শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনামাফিক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

কোভিড-১৯ টাস্কফোর্সের সাথে বৈঠক করেছে শ্রীলঙ্কা। যেখানে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে বলে জানান লঙ্কান বোর্ডের ভাইস প্রেসিডেন্ট রাভিন বিকরামারাত্নে। তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ টাস্কফোর্সের সাথে আমাদের ইতিবাচক বৈঠক হয়েছে। সবাই এটার সাথে একমত হয়েছেন যে, এই সফরটি আমাদের নিশ্চিত করা উচিত। তবে চিকিৎসকরা কী বলছেন, সেটাও আমাদের মানতে হবে।’

তবে এত কঠিন শর্ত মেনে শ্রীলঙ্কা সফরে যেতে রাজি না বিসিবি সভাপতি পাপন। তিনি জানালেন, ‘আমরা একটি বার্তাই ওদেরকে দিতে চাই, ওরা যে শর্তাবলী দিয়েছে, এটা ইতিহাসে বিরল। এটা দিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ সম্ভব নয়। তারপর ওরা যদি বলে যে, ‘আসো আলাপ-আলোচনা করি’, তখন আমরা দেখব কী বলা যায় বা কোথায় শিথিল করতে বলব। তবে এই কন্ডিশনে খেলা হবে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের বলা হয়েছিল তাদের ওখানে করোনা নাই। তারপর দেখলাম ওদের ওখানেও আছে। পরে আমরা ওদের জানালাম যে, আমরা বড় স্কোয়াড নিয়ে যাব। তাদের ওখানে আমরা অনুশীলন করবো। ওরা এখন অনুশীলনেরও সুযোগ দিচ্ছে না। কোনো অনুশীলন ছাড়া, যেখানে আমাদের খেলোয়াদের সাত মাস ধরে খেলা নেই সেখানে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ তো হতেই পারে না। ওখানে গিয়েও আমরা অনুশীলন করতে পারবো না, সেটা তো সম্ভব না। কাজেই এই মুহূর্তে এটা হওয়া সম্ভব না।’

তিন মাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কার উদ্দেশে রওনা দেওয়ার কথা বাংলাদেশ দলের।

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ