অগ্নিঝরা মার্চ

সোনালী ডেস্ক : অগ্নিঝরা মার্চের আজ পঞ্চম দিন। ১৯৭১ সালের এদিন হরতাল কর্মসূচি পালনকালে টঙ্গীতে সেনাবাহিনীর গুলিবর্ষণে ৬ জন নিহত ও ৩৫ জন আহত হন। খুলনা ও রাজশাহীতেও যথাক্রমে ২ জন ও ১ জন নিহত হন। টঙ্গীতে ২০ হাজারেরও বেশি শ্রমিক স্বাধিকার আন্দোলনের অংশ হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল বের করলে সেনাবাহিনী নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করে।
এ ঘটনার প্রতিবাদে বিকালে আওয়ামী লীগ, শ্রমিক লীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে বায়তুল মোকাররম থেকে এক বিশাল লাঠি মিছিল বের হয়। বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে আওয়ামী লীগের তরফ থেকে ব্যাংকিং লেনদেনের ওপর নতুন নির্দেশ দেয়া হয়। দলের সাধারণ সম্পাদক তাজউদ্দীন আহমদ এদিন চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, রংপুর, সিলেট ও দেশের অন্যান্য স্থানে সংঘটিত বর্বরোচিত হত্যাকাÐের চিত্র তুলে ধরেন। যে কোন জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য আওয়ামী লীগ একটি কন্ট্রোলরুম স্থাপন করে। এদিন তাহরিক-ই-ইশতিকলাল পার্টির প্রধান এয়ার মার্শাল (অব) আসগর খান পাকিস্তানের সংহতি বিপন্ন উল্লেখ করে অবিলম্বে শেখ মুজিবের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের আহŸান জানান।

শর্টলিংকঃ