অক্সিজেন নিয়ে আগাম চিন্তা শুভ লক্ষণ

  • 1
    Share

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে যেখানে পরিস্থিতির আগে চলা দরকার সেখানে আমরা ছুটেছি পিছে পিছে। তাই কখনও পরিস্থিতি উদ্বেগজনক হয়ে উঠেছে, যার মূল্য দিতে হয়েছে করোনা আক্রান্তদের। প্রতিবেশি ভারতে পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ।

ভারত বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকা উৎপাদনকারী দেশ হওয়া সত্ত্বেও করোনা টিকা সঙ্কটের কারণে বিভিন্ন রাজ্যে টিকাদানকেন্দ্র বন্ধ করতে হয়েছে। দিল্লি সরকারের হাতে টিকা নেই বলে জানিয়েছেন সেখানকার মুখ্যমন্ত্রী। একই অবস্থা অক্সিজেন নিয়েও। হাসপাতালে জায়গা না পেয়ে করোনা রোগীর স্বজনেরা অক্সিজেনের সন্ধানে হন্যে হয়ে ঘুরছেন। সুযোগ বুঝে প্রতারকচক্র দিশেহারা লোকদের কাছে অক্সিজেন সিলিন্ডারের বদলে অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র বিক্রি করছে বলে খবর ছাপা হয়েছে পত্রিকায়।

এমন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের অক্সিজেন উৎপাদন ক্ষমতা ও সরবরাহ ব্যবস্থার বিষয়ে সরকারের আগাম চিন্তাভাবনার খবর আশাপ্রদ। অক্সিজেন ঘাটতি মোকাবিলায় আমদানির পাশাপাশি উৎপাদন বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। জরুরি সঙ্কট মোকাবিলায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ৮টি বিভাগীয় শহরে অক্সিজেন উৎপাদন কারখানা স্থাপন করতে চাচ্ছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তবে তা সময় সাপেক্ষ হওয়ায় জরুরি ভিত্তিতে কিছু পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানা গেছে।

অক্সিজেন উৎপাদনকারী ৫টি প্রতিষ্ঠানের উৎপাদন ক্ষমতা বৃদ্ধি ও শিল্প-কারখানায় আপাতত অক্সিজেন সরবরাহ বন্ধের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। উৎপাদিত অক্সিজেন সবটাই হাসপাতালে সরবরাহ করা শুরু হয়েছে। ফলে বর্তমানে অক্সিজেন সঙ্কট না থাকলেও ভবিষ্যতের আশঙ্কা থেকেই সরকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সচেষ্ট হয়েছে।

এমন ভবিষ্যতমুখী চিন্তা অবশ্যই ইতিবাচক। সবক্ষেত্রে এমন হলে সঙ্কট এড়িয়ে চলা যে সম্ভব সেটা না বললেও চলে। অক্সিজেনের মতো অন্য সব বিষয়েও এমন আগাম চিন্তা, পরিকল্পনা ও পদক্ষেপ গ্রহণই সকলের কাম্য।

 

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ