কাজ রেখে প্রতিদিন আন্দোলনে আসুন: ভিসি

11/05/2016 1:05 am0 commentsViews: 32

003বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকীর খুনিরা গ্রেফতার না হওয়া পর্যনৱ অফিসের কাজ রেখে প্রতিদিন শিৰক সমিতির আধাঘন্টার কর্মসূচিতে অংশ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ভিসি অধ্যাপক ড. মুহ্‌ম্মদ মিজানউদ্দিন। মঙ্গলবার সকালে সিনেট ভবন চত্ত্বরে মানববন্ধন থেকে শিৰক-শিৰার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে ঐক্যবদ্ধভাবে এ আন্দোলনে শরিক হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
অধ্যাপক ড. মিজানউদ্দিন বলেন, ‘হত্যাকা-ের ১৮ দিন পেরিয়ে গেছে। পুলিশের তদনেৱর কোনো অগ্রগতি দেখছি  না। এখন আমরা থেমে গেলে, সামনের দিনে শিৰক হত্যাকা- বাড়তেই থাকবে। এজন্য চলমান আন্দোলন বিশ্ববিদ্যালয়ের অসিৱত্ব রৰার আন্দোলনে পরিণত হয়েছে। হত্যা ও হত্যার হুমকিতে এ ক্যাম্পাসে যে আতঙ্ক নেমে এসেছে, তা থেকে আমরা মুক্তি চাই। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আপনারা (শিৰক ও কর্মকর্তা-কর্মচারী) প্রতিদিন আধাঘন্টা অফিসের কাজ রেখে এ আন্দোলনে শরিক হোন।’
রাবি শিৰক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মুহম্মদ শহীদুলস্নাহ বলেন, ‘অধ্যাপক রেজাউল হত্যার বিচার দাবি, শুধু ইংরেজি বিভাগ কিংবা শিৰক সমিতির দাবি নয়। এ দাবি বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের। আমরা প্রকৃত অপরাধীদের বিচারের কাঠগড়ায় দেখতে চাই, শাসিৱ কার্যকর দেখতে চাই। অন্যথায় বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারে নিরপত্তাহীনতা দূর হবে না।’
ইংরেজি বিভাগের সভাপতি সহযোগী অধ্যাপক ড. মাসউদ আখতার বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সিনিয়র অধ্যাপকের হত্যার তদনেৱ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের গড়িমসি দেখছি, তাতে আশ্চার্যান্বিত হওয়া ছাড়া উপায় নেই। আর কতদিন এভাবে একাডেমিক কাজ ছেড়ে আমাদের আন্দোলনে থাকতে হবে?’
মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন শিৰক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. শাহ্‌ আজম, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সফিকুন্নবী সামাদী, বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা মো. রাব্বেল হোসেন প্রমূখ। এতে ইংরেজি বিভাগের শিৰক-শিৰার্থীরা একাত্মতা ঘোষণা করেন।
এদিকে সোমবার শিৰক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের আন্দোলনে নামতে ভিসির আহ্বানের পরদিন কর্মসূচিতে ব্যাপক উপসি’তি লৰ্য করা গেছে। এদিন শতাধিক শিৰক-শিৰার্থীর সঙ্গে প্রায় দেড় শতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারীও কর্মসূচিতে অংশ নেন। এর আগে ক্যাম্পাসে মৌন মিছিল বের হয়। পরে ‘মুকুল প্রতিবাদ ও সংহতি মঞ্চে’ গিয়ে সমাবেশ করে তারা। সমাবেশ থেকে ইংরেজি বিভাগের সভাপতি মুকুল প্রতিবাদ ও সংহতি মঞ্চকে স’ায়ী মঞ্চে রম্নপ দেয়া হবে বলে ঘোষণা দেন।
গত ২৩ এপ্রিল নগরীর শালবাগান এলাকায় নিজ বাড়ির প্রায় দেড়শো গজ দূরে খুন হন অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকী। ওই দিন বিকেলে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় নিহতের ছেলে রিয়াসাত ইমতিয়াজ সৌরভ বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করে। পরদিন মামলা মহানগর ডিবিতে হসৱানৱর করা হয়। চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকা-ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এ পর্যনৱ পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হলেও হত্যার মোটিভ উদ্ধার করতে এখনও ব্যর্থ পুলিশ।

Tags:

Leave a Reply