নগরীতে সন্ত্রাসী কর্তৃক দোকান ভাংচুর, মালিক ও কর্মচারি আহত

18/02/2016 1:05 am0 commentsViews: 4

স্টাফ রিপোর্টার: শিরোইল বাসষ্ট্যান্ডে দোকান মালিক ও কর্মচারীকে মারপিট ও দোকান ভাংচুরের প্রতিবাদে ঘন্টাব্যাপী সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছে দোকান মালিকগণ ও শ্রমিকরা। আহতরা হচ্ছে, বিসমিল্লাহ টাটা মোটর্সের মালিক শামিম রেজা (৩৩) ও কর্মচারি দিন (১৫)। গতকাল বুধবার রাত ৯টার দিকে বাস’হারা এলাকার কথিত ৭/৮ জন সন্ত্রাসী কর্তৃক তারা হামলার শিকার হন বলে অভিযোগ উঠেছে। পরে পুলিশ গিয়ে বিচারের আশ্বাস দিলে উক্ত অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়। আহত দিন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে এবং শামিম রেজাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহত শামীম রেজা জানান, রাত ৯টার দিকে প্রসাব করাকে কেন্দ্র করে বাস’হারার কিছু কথিত সন্ত্রাসী দোকান কর্মচারি দিনকে মারধোর করে। এ সময় তিনি বাধা দিলে উক্ত সন্ত্রাসীরা তাঁকে লোহার রড ও বাঁশের লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে এবং দোকান ভাংচুর চালায়। তিনি বিসমিল্লাহ টাটা মোটর্সের মালিক এবং তাঁর কয়েকটি বাস রয়েছে। উক্ত মারপিটের ঘটনা শুনে বাসের কয়েকজন শ্রমিক শামীম রেজাকে উদ্ধারের জন্য এগিয়ে আসে এবং মারপিটের প্রতিবাদ জানায়। এতে করে  সন্ত্রাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে উক্ত শ্রমিকদেরকেও মারপিট করে। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এবং দোকান মালিকগন ও শ্রমিকরা যৌথভাবে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে। খবর পেয়ে বোয়ালিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস’লে গিয়ে সন্ত্রাসীদের বিচারের আশ্বাস দিলে অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়। পুলিশ আহত শামীম রেজাকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করেন এবং বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে জানান।
এ ব্যাপারে বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাত হোসেন খান জানান, আহত শামীম রেজাকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে রাত সাড়ে ১০টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন- থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন ছিল।

Tags:

Leave a Reply