স্টাফ রিপোর্টার: সম্প্রতি অনুষ্ঠিত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন প্রতিশ্র্বতি দিয়েছিলেন, মেয়র নির্বাচিত হতে পারলে তিনি নগরীর বাসাবাড়ি ও শিল্পখাতে গ্যাস এনে দেবেন। এটি তার নির্বাচনি ইশতেহারেই ছিল। নির্বাচনে লিটন মেয়র হয়েছেন। আর নির্বাচিত হয়েই তিনি গ্যাস দেওয়ার এই নির্বাচনি ইশতেহার বাস্তবায়ন শুর্ব করলেন। যদিও এখন পর্যন্ত তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ করেননি।
গতকাল সোমবার রাজশাহীতে বাণিজ্যিকখাতে গ্যাস সংযোগ প্রদানের ফরম বিতরণের মাধ্যমে তিনি নিজের প্রতিশ্র্বতির বাস্তবায়ন শুর্ব করলেন। এছাড়া আবাসিক বাসা-বাড়িতে গ্যাস সংযোগ নিতে যে ২১ হাজার জন গ্রাহক আবেদন করেছেন, তাদের গ্যাস প্রদান কাজও শিগগিরই শুর্ব হবে বলে জানিয়েছেন মেয়র।
মেয়র এএএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন দেশসেরা গ্রাহক নির্বাচিত হওয়ায় তাকে সংবর্ধনা প্রদান, বাণিজ্যিক গ্যাস সংযোগ প্রদানের কার্যক্রমের উদ্বোধন ও বৃৰরোপণ কর্মসূচির আয়োজন করে পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের (পিজিসিএল) রাজশাহী আঞ্চলিক কার্যালয়।
গতকাল বেলা ১১টায় খড়খড়ি টিবিএস ক্যাম্পাসে এসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানেই বাণিজ্যিক গ্যাস সংযোগ প্রদানের ফরম বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন লিটন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ২০০৫-২০০৬ সালে আমরা রাজশাহীতে গ্যাস সংযোগ পেতাম। কিন’ তৎকালীন ৰমতাসীন দলের একজন রাজপুত্রের কারণে তখন রাজশাহীকে বাদ দিয়ে বগুড়ায় গ্যাস সংযোগ দেওয়া হয়। এটি আমাদের জন্যে অনেক কষ্টের ছিল। তবে পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি করে রাজশাহীতে গ্যাস সংযোগ নিয়ে আসি। ২০১৩ সালের জুন মাসে আমরা প্রথম আবাসিকে গ্যাস সংযোগ পাই।
মেয়র বলেন, রাজশাহীতে শিল্প ও বাণিজ্যিক ৰেত্রে গ্যাস সংযোগ বেশি দরকার। আজ বাণিজ্যিক খাতের জন্য গ্যাস সংযোগের ফরম বিতরণ করলাম। এই সংযোগ প্রদান কাজ অব্যাহত থাকবে। আর আবাসিক গৃহে রাজশাহীতে এখন পর্যন্ত ৯ হাজার ৩৬৪ জনকে গ্যাস সংযোগ দেওয়া হয়েছে। যে ২১ হাজার জন আবাসিক গ্যাস সংযোগ নিতে আবেদন করেছেন, তাদেরও সংযোগ দেওয়ার ব্যবস’া শিগগিরই শুর্ব হবে।
জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামার্বজ্জামানের সুযোগ্য সন্তান খায়র্বজ্জামান লিটন আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের সার্বিক কল্যাণে কাজ করছেন। প্রধানমন্ত্রীর সার্বিক সহযোগিতায় রাজশাহীতে ব্যাপক উন্নয়ন হবে। আগামী ১০ অক্টোবর দায়িত্ব গ্রহণের পর দ্র্বত শিল্পায়নের কাজ শুর্ব করা হবে, রাজশাহীতে গার্মেন্টস হবে। আমি নির্বাচনি ইশতেহারে যে কথাগুলো দিয়েছি, সেগুলো একে একে বাস্তবায়ন হবে।
প্রসঙ্গত, রাজশাহীতে বাণিজ্যিক খাতে ২৮১ জনকে গ্যাস সংযোগ প্রদানের অনুমতি মিলিছে। গতকাল ১৫ জন ব্যবসায়ীকে বাণিজ্যিক খাতে গ্যাস সংযোগ প্রদানের ফরম বিতরণ করেন মেয়র লিটন। এর আগে দেশসেরা গ্রাহক নির্বাচিত হওয়ায় মেয়রকে সংবর্ধনা প্রদান করে পিজিসিএল কর্তৃপৰ। এ সময় তাকে ক্রেস্ট ও সনদপত্র প্রদান করে প্রতিষ্ঠানটি। পরে বৃৰরোপণ করেন মেয়র। এ সময় রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মনির্বজ্জামান মনি, পিজিসিএলের ব্যবস’াপনা পরিচালক আব্দুল মান্নান পাটোয়ারী, স’ানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম ভুলু প্রমুখ উপসি’ত ছিলেন।
উলেৱখ্য, গত ৩০ জুলাই নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বিপুল ভোটে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন। গত ৫ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মেয়র এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটনকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শপথ বাক্য পাঠ করান। আগামী ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন মেয়র এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন।