এফএনএস: একুশে অগাস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় রায়ের কপি আদালত থেকে কারাগারে পৌঁছানোর পর সাজাপ্রাপ্তদের কয়েদির পোশাক পরানো হয়েছে। গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার ১ ও ২-এর ভারপ্রাপ্ত জ্যেষ্ঠ সুপার সুব্রত কুমার বালা বলেন, গত বুধবার সকালে রায় ঘোষণার পর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে রায়ের কপি তাদের কারাগারে আসে।
গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে তাদের কয়েদির পোশাক পরানো হয়। তবে সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলায় ফাঁসির দ-প্রাপ্ত হওয়ায় তিনি আগে থেকে কয়েদির পোশাকে ছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার বিএনপি নেতা সাবেক শিক্ষা উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুসহ অন্যান্যের কয়েদির পোশাক পরানো হয়। ২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার মোট ১৪ আসামি কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার ১ ও ২-এ আছেন বলে তিনি জানান। আরও ১৭ আসামি কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন বলে জানিয়েছেন জেলার বিকাশ রায়হান। এ মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আরও ১৮ আসামি পলাতক রয়েছেন। তাদের মধ্যে আছেন খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমানও।
২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী শোভাযাত্রায় গ্রেনেড হামলায় ২৪ জন নিহত হন; আহত হন কয়েকশ নেতাকর্মী। এ ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দুটি মামলা হয়। ৪৯ জনের বির্বদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয় আদালতে। বিচার শেষে গত বুধবার আদালত মামলার রায় দেয়। আসামিদের মধ্যে ১৯ জনকে মৃত্যুদ-, ১৯ জনকে যাবজ্জীবন, আর অন্যান্যের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ- দিয়েছে আদালত। আটক আসামিদের মধ্যে ৩১ জন কাশিমপুরের তিনটি কারাগারে রয়েছেন।