বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : সরকারি চাকরিতে ৫ শতাংশ প্রতিবন্ধী কোটা বহাল রাখার দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রধান গেটের সামনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে বিৰোভ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবন্ধী শিৰার্থীরা। গতকাল সোমবার দুপুর দেড়টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত তারা এ কর্মসূচি পালন করে। এতে মহাসড়কের দু’পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, আমরা অন্য শিৰার্থীদের মতো সুযোগ-সুবিধা পায়না। পড়ালেখায় বা পরীৰায় অন্য শিৰার্থীদের মতো স্বাভাবিকভাবে অংশ নিতে পারিনা। অনেক প্রতিকূলতার মধ্যে দিয়ে পড়ালেখা চালিয়ে যেতে হয়। স্বাভাবিক শিৰার্থীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকা অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। তাই আমাদের জন্য কোটা বহাল রাখতে হবে।
বক্তারা আরও বলেন, প্রতিবন্ধীরাও দেশের একটি অংশ। এক অংশ বাদ রেখে কোনো দেশের উন্নতি সম্ভব হয়নি। প্রতিবন্ধীদের যদি কর্মসংস্থানের সুযোগ করে না দেয়া হয়, তাহলে দেশের উন্নতি ব্যাহত হবে। প্রতিবন্ধীদের কর্মসংস্থান বা তাদের মানবসম্পদে পরিণত করতে কোটার বিকল্প নেই।রাবির প্রতিবন্ধী শিৰার্থীদের
মহাসড়ক অবরোধ
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : সরকারি চাকরিতে ৫ শতাংশ প্রতিবন্ধী কোটা বহাল রাখার দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রধান গেটের সামনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে বিৰোভ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবন্ধী শিৰার্থীরা। গতকাল সোমবার দুপুর দেড়টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত তারা এ কর্মসূচি পালন করে। এতে মহাসড়কের দু’পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, আমরা অন্য শিৰার্থীদের মতো সুযোগ-সুবিধা পায়না। পড়ালেখায় বা পরীৰায় অন্য শিৰার্থীদের মতো স্বাভাবিকভাবে অংশ নিতে পারিনা। অনেক প্রতিকূলতার মধ্যে দিয়ে পড়ালেখা চালিয়ে যেতে হয়। স্বাভাবিক শিৰার্থীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকা অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। তাই আমাদের জন্য কোটা বহাল রাখতে হবে।
বক্তারা আরও বলেন, প্রতিবন্ধীরাও দেশের একটি অংশ। এক অংশ বাদ রেখে কোনো দেশের উন্নতি সম্ভব হয়নি। প্রতিবন্ধীদের যদি কর্মসংস্থানের সুযোগ করে না দেয়া হয়, তাহলে দেশের উন্নতি ব্যাহত হবে। প্রতিবন্ধীদের কর্মসংস্থান বা তাদের মানবসম্পদে পরিণত করতে কোটার বিকল্প নেই।