স্টাফ রিপোর্টার: আসন্ন দুর্গাপূজায় রাজশাহী বিভাগে জঙ্গি হামলা বা সহিংসতার কোনো আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন রাজশাহী রেঞ্জের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) এম খুরশীদ হোসেন। গতকাল সোমবার দুপুরে পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জ কার্যালয়ে শারদীয় দুর্গাপূজায় নিরাপত্তা বিষয়ক মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের একথা জানান তিনি।
ডিআইজি বলেন, এবার রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় তিন হাজার ৪৩৮ পূজা ম-পকে অধিক গুর্বত্বপূর্ণ, গুর্বত্বপূর্ণ ও সাধারণ হিসেবে ভাগ করা হয়েছে। এসব পূজা ম-পের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ ও আনসার সদস্যের পাশাপাশি র‌্যাবও থাকবে। এছাড়াও পুলিশের নিয়মিত টহল থাকবে। বিভিন্ন এলাকায় চেকপোস্ট বসানো হবে। সন্দেহভাজন ব্যক্তি ও যানবাহনে তলৱাশি চালানো হবে।
এ সময় মাদকের বির্বদ্ধে পুলিশের জিরো টলারেন্স নীতির কথা জানিয়ে ডিআইজি বলেন, মাদক ব্যবসার সঙ্গে কোনো পুলিশ সদস্যের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে নিয়মতি মামলা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও মাদকের বিস্তার রোধ ও শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেপ্তারেও পুলিশ মাঠে কাজ করছে।
আসন্ন সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে মাদকদ্রব্য ও অবৈধ অস্ত্র প্রবেশের প্রশ্নে ডিআইজি বলেন, এসব রোধে শুধু পুলিশকে সজাগ থাকলে হবে না। সংশিৱষ্ট সবাইকে দায়িত্বশীলভাবে কর্তব্য পালন করতে হবে। না হলে সমাজ থেকে মাদক, বা সন্ত্রাস ও জাঙ্গিবাদ সমূলে উৎখাত করা যাবে না।
সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে ডিআইজি বলেন, গত বছর অসীম সাহসিকতা, বীরত্বপূর্ণ কাজের স্বীকৃতি এবং গুর্বত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদঘাটন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, দৰতা, কর্তব্যনিষ্ঠা, সততা ও শৃঙ্খলামূলক আচরণের জন্য ২৬ জন পুলিশ সদস্য বিপিএম, পিপিএম ও আইজিপি ব্যাজ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।
মতবিনিময় সভায় রাজশাহী রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি নিশার্বল আরিফ, মাসুদুর রহমান ভূঁইয়া ও রাজশাহীর পুলিশ সুপার শহিদুলৱাহসহ বিভাগের আট জেলার পুলিশ সুপার ও পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।