বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে ৫ শতাংশ অদিবাসী কোটা বহালের দাবিতে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করেছে আদিবাসী ছাত্র পরিষদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখার নেতাকর্মীরা। গতকাল শনিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজলা গেট থেকে বিৰোভ মিছিল বের করেন তারা।
মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে এলে মহাসড়ক অবরোধ করে সেখানে অবস’ান কর্মসূচি পালন করেন তারা। এতে রাস্তার দু’পাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে তারা তাদের অবরোধ কর্মসূচি তুলে নেন।
জানা যায়, সকাল সাড়ে নয়টার দিকে আদিবাসী ছাত্র পরিষদের অর্ধশতাধিক শিৰার্থী কাজলা গেট থেকে মিছিল নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে এসে মহাসড়ক অবরোধ করে। এসময় তারা রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে বিৰোভ করেন এবং ৫% কোটা বহাল রাখো, রাখতে হবে’, ‘মন্ত্রিপরিষদ সচিবের সিদ্ধান্ত, মানি না, মানব না’ ‘পাহাড় কি সমতলে, লড়াই হবে সমানতালে’সহ বিভিন্ন সেৱাগান দিতে দেখা যায়।
এসময় সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি নকুল পাহান বলেন, আদিবাসীদের ৫% কোটা বহাল রাখতে হবে। আদিবাসী কোটা বাতিলের সময় এখনো হয় নি। তারা এখনো ভালভাবে এগিয়ে যায় নি। যারা কোটা চান তারা আন্দোলন করেন এটা আমরা শুনতে চাই না, আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানতে চাই কেন আদিবাসী কোটা বাতিল করা হলো তার সঠিক কারণ।
গত ০৩ অক্টোবর কোটা বাতিল/পর্যালোচনা/সংস্কারের জন্য গঠিত উচ্চ পর্যায়ের কমিটি সরকারি চাকরিতে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির পদে কোটা বাতিলের প্রস্তাব রেখে যে সুপারিশ করেছিল, তাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রিসভায় সরকারি চাকরির ৰেত্রে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণিতে চাকরির কোটা বাতিল করার অনুমোদন দেন।