সোনালী ডেস্ক: নােটরের বড়াইগ্রাম ও সিরাজগঞ্জের মুলিবাড়িতে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ নারীসহ ৩ জন নিহত ও ৯ জন আহত হয়েছেন।
নাটোর ও বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি জানান, নাটোরের বড়াইগ্রামে পিকআপ-অ্যাম্বুলেন্স ও সিএনজির ত্রিমুখী সংঘর্ষে আইয়ুব আলী (৩২) নামে একজন নিহত ও কমপৰে ৭ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার ভোরে নাটোর-পাবনা মহাসড়কের আহমেদপুর কাঁচুটিয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আইয়ুব আলী বড়াইগ্রামের নওপাড়া গ্রামের গিয়াসউদ্দিনের ছেলে। দুর্ঘটনায় আহতদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঝলমলিয়া হাইওয়ে ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মোজাম্মেল হক জানান, শনিবার ভোরে কাঁচুটিয়া এলাকায় নাটোরগামী একটি দ্র্বতগতির পিকআপের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি অ্যাম্বুলেন্সের মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধে। এ সময় অ্যাম্বুলেন্সটির পেছনে থাকা যাত্রীবাহী সিএনজিটি অ্যাম্বুলেন্সের সঙ্গে সাজোরে ধাক্কা খেয়ে রাস্তার পাশের খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই সিএনজির যাত্রী আইয়ুব আলী নিহত ও সিএনজি ও অ্যাম্বুলেন্সের সাত যাত্রী আহত হন। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। ঘাতক পিকআপটি জব্দ করেছে পুলিশ।
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ সড়কের সিরাজগঞ্জের মুলিবাড়িতে ট্রাকের চাপায় ব্যাটারিচালিত অটোভ্যানের ২ নারী যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ২ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ সড়কের মুলিবাড়ি চেকপোস্ট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, সদর উপজেলার সয়দাবাদ ইউনিয়নের কোনাগাঁতী গ্রামের মনোয়ারা খাতুন (৫০) ও চায়না খাতুন (৩৫)। আহতদের মধ্যে রফিকুল ইসলামকে (৪৩) আশঙকাজনক অবস্থায় সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ শহীদ আলম জানান, অটোভ্যানটি যাত্রী নিয়ে সয়দাবাদ গোলচত্বর এলাকায় যাচ্ছিল। পথে একটি ট্রাক পেছন থেকে ভ্যানটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ওই ২ নারী। আহত হন আরও ২ ভ্যানযাত্রী। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠায়। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙকাজনক বলে তিনি জানান। তবে দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাকটিকে আটক করা হলেও চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়।