বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও নাতি-নাতনীদের কোটা বহাল রাখার দাবিতে বুধবার মধ্যরাত থেকে দফায় দফায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রধান ফটকের সামনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে বিৰোভ করেছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তিন দফা তারা এ কর্মসূচি পালন করে। এসময় তারা সড়কে আগুন জ্বালিয়ে সেৱাগানে সেৱাগানে কোটা বহাল রাখার দাবি জানান। ফলে রাস্তায় দুই পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।
প্রত্যৰদর্শী সূত্র জানায়, গত বুধবার রাত ১২টার দিকে তারা মড়াসড়ক অবরোধ করে বিৰোভ শুর্ব করে। ঘণ্টাব্যাপী কর্মসূচি শেষে রাত ১টার দিকে তারা অবরোধ তুলে নেয়। পরে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ফের একই কর্মসূচি পালন করে তারা। সবশেষ গতকাল সন্ধ্যায় তৃতীয় দফায় আন্দোলনে নামে তারা। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনের রাস্তা অবরোধ করে বিৰোভ করে তারা।
বিশ্ববিদ্যালয় শাখা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের আহ্বায়ক তারেক হাসান বলেন, ‘কোটা আমাদের অধিকার। কিন্তু যারা দেশের জন্য জীবন দিলো, তাদের সম্মান কতোটুকু রাখা হলো। সাংবিধানিকভাবে তাদের কোনো স্বীকৃতি নাই যা বঙ্গবন্ধু উপহার দিয়ে গেছেন তাই আছে। আমরা চাই মুক্তিযোদ্ধার সম্মান ফিরিয়ে দেয়া হোক। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাব।’
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, আমরা তাদেরকে শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করতে বলেছি। আহ্বান জানিয়েছে- যাতে তারা মহাসড়ক ছেড়ে দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে কর্মসূচি করে। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি করে তাদের দাবি জানায় সেই নির্দেশ দেয়া হয়েছে।