উগ্রবাদের বিরম্নদ্ধে জনমত তৈরিতে কাজ করবে রাজশাহীর শিৰার্থীরা

11/08/2018 1:04 am0 commentsViews: 3

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর শিৰা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শানিৱ, সম্প্রীতি, সহনশীলতা প্রতিষ্ঠায় এবং উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদের বিরম্নদ্ধে জনসচেতনতা ও জনমত গড়ে তুলতে ছাত্র-ছাত্রী সক্রিয় ও সোচ্ছার ভূমিকা রাখতে অঙ্গিকার ব্যক্ত করেছে।
নগরীর পোস্টাল একাডেমিতে শুক্রবার শেয় হওয়া ইয়ুথ লিডারশীপ ট্রের্নিং ফর কোর মেম্বার শীর্ষক প্রশিৰণ কর্মসূচির সমাপনী অনুষ্ঠানে তারা এই অঙ্গিকার ব্যক্ত করে।
অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক শাহ আযম শানৱনু, নর্থবেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটির আইন বিভাগের প্রধান ড. নাসরিন লুবনা, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক নিখাত বিনতে জিন্নাহ, সিসিডি বাংলাদেশ’র পরিচালক জি এম মুরতুজা ও রেডিও পদ্মা’র স্টেশন ম্যানেজার শাহানা পারভীন।
গণযোগাযোগ বিষয়ক জ্ঞানচর্চা কেন্দ্র সিসিডি বাংলাদেশ’এর উদ্যোগে আয়োজিত চার দিনব্যাপী এই প্রশিৰণে বিভিন্ন সেশন পরিচালনা করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক সেলিম রেজা নিউটন, অধ্যাপক মশিহুর রহমান ও শাতিল সিরাজ, পিবিআই-এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ, সিটিএসবি’র পুলিশ সুপার আবু আহমেদ আল মামুন, সিসিডি’র প্রকল্প সমম্বয়কারী এস. এম মেহেদী হাসান তানভীর ও আশেয়া সিদ্দিকা অনু, প্রোগ্রাম অফিসার আমজাদ হোসেন শিমুল, ফ্যসিলিয়েটেটর তাহমিন হোসেন অনৱ, শামসুন নাহার সুইটি ও সৌমী নাহিদ স্বর্ণ।
ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর সহায়তায় আয়োজিত চার দিনব্যাপী এই প্রশিৰণে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, নর্থবেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটি ও রাজশাহী কলেজের ৩৬ জন মেধাবী শিৰার্থী অংশগ্রহণ করে।
প্রশিৰণ শেষে প্রশিৰণার্থী শিৰার্থীগণ স্ব স্ব শিৰা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে শানিৱ, সম্প্রীতি ও সহনশীলতা বৃদ্ধিতে এবং উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদের বিরম্নদ্ধে জনসচেতনতা ও জনমত গড়ে তুলতে বিভিন্ন ধরনের কর্মসূচি বাসৱবায়ন করবে।

সৌদি আরবের সাথে বিরোধ নিরসনে সহায়তা চেয়েছে কানাডা
এফএনএস আনৱর্জাতিক ডেস্ক : কানাডা সৌদি আরবের সাথে তাদের চলমান কূটনৈতিক টানাপোড়েন নিরসনে জার্মানি ও সুইডেনসহ অন্য মিত্র দেশের সহায়তা চেয়েছে। গত বৃহস্পতিবার দেশটির সরকারি সূত্র একথা জানিয়েছে। খবর এএফপি’র।
কূটনীতির স্পর্শকাতরতার কারণে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক সিনিয়র কর্মকর্তা জানান, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ক্রিশিয়া ফ্রিল্যান্ড ইউরোপীয় এ দু’দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সৌদি আরবের সাথে বিরোধের বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন। এর আগে সৌদি আরবের মানবাধিকার লংঘনের অভিযোগ তোলার কারণে জার্মানি ও সুইডেন দেশটির নেতিবাচক প্রক্রিয়ার সম্মুখীন হয়। কানাডার কর্মকর্তা জানান, এ বিরোধ কিভাবে নিরসন করা যায় সে ব্যাপারে তাদের সহযোগিতা ও সমর্থন চেয়েছেন ফ্রিল্যান্ড। অটোয়া ব্রিটেন ও আঞ্চলিক গুরম্নত্বপূর্ণ দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতেরও সহযোগিতা নেয়ার পরিকল্পনা নিয়েছেন। সৌদি আরবের সাথে ঐতিহাসিকভাবে ব্রিটেনের অনেক ভাল সম্পর্ক রয়েছে। এদিকে নারীর অধিকার রক্ষা বিষয়ক আইনজীবী গ্রম্নপ, বিভিন্ন দাতা সংগঠন ও বেসামরিক অধিকার রক্ষা গ্রম্নপ সৌদি আরবে নারীর অধিকারের প্রতি সম্মান জানাতে কানাডার সাথে যোগ দিতে আনৱর্জাতিক সমপ্রদায়ের প্রতি আহবান জানিয়েছে।
উলেস্নখ্য, অটোয়া সৌদি আরবে মানবাধিকার কর্মীদের হয়রানির নিন্দা এবং নারী অধিকার কর্মী সমার বাদওয়ি ও নাসিমা আল সাদা’র মুক্তির দাবী জানানোর পর সৌদি আরব থেকে কানাডার দূতকে বহিস্কার এবং দুইদেশ তাদের দূতকে ডেকে পাঠানো ও নতুন করে সকল বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বন্ধ করে দেয়ার ঘোষণা দেয়ায় এ দু’দেশের মধ্যে চরম কূটনৈতিক টানাপোড়েন শুরম্ন হয়।

Leave a Reply