সিটি নির্বাচনে নারী ও তরম্নণদের ভূমিকাই নির্ধারক

15/07/2018 1:04 am0 commentsViews: 10

আমাদের জনসংখ্যায় নারীরা এগিয়ে আছেন। রাজশাহী নগরীতেও নারী ভোটারের সংখ্যাই বেশি। তাই স্বাভাবিকভাবেই এবারের নির্বাচনেও তারা বড় ফ্যাক্টর। সেই সঙ্গে তরম্নণ ভোটারের সংখ্যাও কম নয়। তাই সিটি নির্বাচনে নারী ও তরম্নণদের নির্ধারক ভূমিকা নিয়ে সন্দেহ নেই।
গত সিটি নির্বাচনে নারীদের ভোট কম পাওয়ার কারণেই ৰমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থীর পরাজয় ঘটেছিল বলে দলের অনেকেই মনে করেন। অথচ নির্বাচনের সপ্তাহ খানেক আগে তার হাত দিয়েই নগরীর বাসাবাড়িতে প্রথমবারের মত গ্যাস সংযোগ দেওয়া শুরম্ন হয়েছিল। ভোট গ্রহণের কয়েকদিন আগে নানা কৌশলে ব্যাপকভাবে নারী ভোটারদের প্রভাবিত ও বিভ্রানৱ করেই নির্বাচনের ফলাফল ঘুরিয়ে দেয়া হয়েছিল বলে অনেকটাই নিশ্চিত অনেকে। তাই এবার নারী ভোটারদের কদর একটু বেশিই।
নগরীর ৩ লাখ ১৮ হাজার ১৩৮ ভোটারের মধ্যে ১ লাখ ৬২ হাজার ৫৩ জনই নারী। পুরম্নষ ১ লাখ ৫৬ হাজার ৮৫ জন। এর মধ্যে উলেস্নখযোগ্য সংখ্যক ভোটার তরম্নণ। এবার ৩১ হাজার তরম্নণ নতুন ভোটার হয়েছেন। এই তরম্নণেরাই যে রাজশাহীর চেহারা পাল্টে দিতে গুরম্নত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে সেটা বলা যায় নিঃসন্দেহেই। তাই নারীদের পাশাপাশি তরম্নণদের সমর্থন পেতেও আগ্রহী প্রার্থীরা।
বিগত আমলে নগরীতে গ্যাস সংযোগ দেওয়া বন্ধ ছিল। ফলে অনেকেই বাসাবাড়িতে পাইপ লাইন নিয়ে ও টাকা জমা দিয়েও গ্যাস থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। ফলে এবার তারা কেউই আগের ভুল করতে রাজী হবেন মনে হয় না। এ নিয়ে নগরীর গৃহিণীদের মাথাব্যথাই বেশি। তাই এবার এমন মেয়র নির্বাচিত করবেন তারা যাতে গ্যাস পাওয়া নিশ্চিত হয়। এ ছাড়া প্রার্থীদের ভূমিকা ও কর্মসূচী কতটা নারীবান্ধব সে দিকেও নজর থাকবে তাদের।
এর মধ্যে আওয়ামীলীগ মনোনীত ও ১৪ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী খায়রম্নজ্জামান লিটন তার নির্বাচনি ইশতেহারে আত্মকর্মসংস’ান সৃষ্টির লৰ্যে নারী উদ্যোক্তাদের আইটিভিত্তিক উদ্যোগ, কুটির ও হসৱশিল্প স’াপন এবং প্রশিৰণ কর্মসূচীতে সহায়তার অঙ্গীকার করেছেন। সহিংসতা রোধে সামাজিক উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কথাও বলেছেন তিনি। একইভাবে তরম্নণদের কর্মসংস’ান সৃষ্টি ও খেলাধুলার বিষয়েও তার সুস্পষ্ট অঙ্গীকার রয়েছে ইশতেহারে। অন্যরাও নানাভাবে নারী ও তরম্নণ ভোটারদের আকৃষ্ট করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।
অবস’া দৃষ্টে ধরে নেওয়া যায়, এবারে অপপ্রচার বা আবেগ নয়; দেখে শুনে বুঝেই ভোট দিবেন রাজশাহী সিটির ভোটাররা। এ ৰেত্রে নারী ও তরম্নণরাই যে মূখ্য ভূমিকা পালন করবেন সেটাও নিশ্চিতভাবে বলা যায়।

Leave a Reply