জেলা পরিষদ’র ৩ কোটি টাকার চেক বিতরণ

13/07/2018 1:06 am0 commentsViews: 16

স্টাফ রিপোর্টার: উন্নয়ন কাজের জন্য প্রায় তিন কোটি টাকার চেক বিতরণ করেছে রাজশাহী জেলা পরিষদ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের দপ্তরে আনুষ্ঠানিকভাবে এসব চেক বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার।
অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ ও মহানগরের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। অতিথিদের নিয়ে চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার প্রকল্প সভাপতিদের হাতে অনুদানের প্রথম কিস্তির এই চেক তুলে দেন।
জেলা পরিষদের বার্ষিক উন্নয়ন প্রকল্পের (এডিপি) আওতায় এ দিন রাজশাহী জেলা ও মহানগরের বিভিন্ন মসজিদ, মন্দির, কবরস্থান, শ্মশানসহ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে মোট দুই কোটি ৯২ লাখ ৬০ হাজার টাকার চেক বিতরণ করা হয়। প্রকল্পের সংখ্যা ২১০টি। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে প্রতিষ্ঠানগুলোতে আর্থিক অনুদান বরাদ্দ করা হয়।
অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার বলেন, বর্তমান পরিষদ দায়িত্ব গ্রহণের পর পুরো রাজশাহী জেলায় উন্নয়ন কাজে গতি ফিরেছে। আর এটি সম্ভব হচ্ছে বর্তমান সরকারের আন্তরিকতার কারণে। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সবাইকে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রৰমতায় থাকলেই দেশের উন্নয়ন হয়।
জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, দেশের উন্নয়নে আওয়ামী লীগের কোনো বিকল্প নেই। আওয়ামী লীগ সরকার দেশের প্রতিটি মসজিদ-মন্দিরসহ সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে উন্নয়নকাজ বাস্তবায়ন করে চলেছে। উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হলে আগামী সব নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে হবে।
মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার বলেন, জেলা পরিষদের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকার দেশের সব ধর্মের মানুষের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন করছে। অথচ নির্বাচন এলেই অপপ্রচার চালানো হয় যে, আওয়ামী লীগের কাছে ধর্ম নিরাপদ নয়। তাহলে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ দিচ্ছে কে? আওয়ামী লীগ সরকারই এই উন্নয়ন করছে। তাই সরকারের বির্বদ্ধে অপপ্রচারকারীদের ব্যাপারে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।
অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান, প্যানেল চেয়ারম্যান-১ নাইমুল হুদা রানা, সদস্য এমদাদুল হক, আসাদুজ্জামান মাসুদ প্রমুখ বক্তব্য দেন। জেলা পরিষদের সদস্য শাফিকুল ইসলাম অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। অনুষ্ঠানে পরিষদের অন্য সদস্য ও নারী সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply