ভোটের প্রচারে বৃষ্টির বাগড়া

13/07/2018 1:10 am0 commentsViews: 31

রিমন রহমান: সকাল থেকে রাজশাহীর আকাশ ছিল রোদ ঝলমলে। সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রার্থীরা নেমে পড়েন প্রচার-প্রচারণায়। আগুনঝরা সূর্যের তাপের ভেতর শরীরের ঘাম ঝরিয়ে তারা ছুটে চলছিলেন এক বাড়ি থেকে আরেক বাড়ি। চলছিল জমজমাট প্রচার। কিন্তু বেলা ১১টার দিকে কালো মেঘে আকাশ ঢেকে গিয়ে হঠাৎ শুর্ব হয় বৃষ্টি।
এতে বিঘ্ন ঘটে প্রচারণায়। গতকাল বৃহস্পতিবার এভাবেই প্রার্থীদের প্রচারে বাগড়া বাধায় বৃষ্টি। তারপর দুপুর এবং বিকেলেও রাজশাহীতে লম্বা সময় ধরে ঝুম বৃষ্টি হয়। এতে থমকে যায় প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা। তবে এই বৃষ্টি উপেৰা করেও কোনো কোনো প্রার্থী ছুটে গেছেন ভোটারের দ্বারে দ্বারে। আবার বৃষ্টির কারণে কেউ কেউ প্রচারণা চালিয়েছেন মার্কেটগুলোর ভেতরে।
এদিকে বৃষ্টির কারণে নগরীর সাহেববাজার, গণকপাড়া, মহিষবাথান, উপশহর, সপুরা, তেরোখাদিয়াসহ বিভিন্ন এলাকায় পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। রাস্তা ডুবে যায় ড্রেন উপচে ওঠা নোংরা পানিতে। এর মধ্যেই পা ডুবিয়ে চলতে হয় পথচারীদের। এ অবস্থায় প্রার্থীরা ভোট চাইতে গেলে ভোটাররা তাদের কাছে দাবি তোলেন, নির্বাচিত হলে জলাবদ্ধতার ভোগান্তি দূর করতে হবে। সেই সঙ্গে ভোটাররা আগের মেয়র-কাউন্সিলরদের প্রতি ৰোভ প্রকাশ করেন। তারা বলেন, দায়িত্ব পেয়েও যেসব জনপ্রতিনিধি নগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নতি করে জলাবদ্ধতার মতো নাগরিক ভোগান্তি দূর করতে ব্যর্থ হয়েছেন, এবার তাদের ভোট দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।
গতকাল দুপুরে নগরীর মহিষবাথান মহলৱায় নির্বাচনি প্রচারণা চালাতে গিয়ে বৃষ্টিতে ভিজে যান সিটি করপোরেশনের ৫ নম্বর আসনের সংরৰিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ফিরোজা খাতুন। ফিরোজার প্রতীক আনারস। তিনি বলেন, বৃষ্টিতে হাতের লিফলেটগুলো সব ভিজে গেছে। তবে হাতের আস্ত আনারসটা ভিজে গেলেও নষ্ট হয়নি। সেটি দেখিয়েই তিনি ভোটারদের কাছে ভোট প্রার্থনা করেন। নির্বাচিত হলে ফিরোজা মহলৱার জলাবদ্ধতা দূর করার উদ্যোগ গ্রহণের প্রতিশ্র্বতি দেন।
এদিকে বৃষ্টি উপেৰা করে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল গতকাল নগরীর ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেন। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন দুপুরের আগে নগরীর আরডিএ মার্কেট, কাপড়পট্টি ও স্বর্ণপট্টি এলাকায় গণসংযোগ করেন। বামপন্থি সংগঠন গণসংহতি আন্দোলন সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মুরাদ মোর্শেদ এ দিন গণসংযোগ করেন রাজশাহীর আদালতপাড়ায়। তারা নগরীর জলাবদ্ধতা দূরসহ নানা উন্নয়নের প্রতিশ্র্বতি দেন।
রাজশাহী সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে আরও দুই প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির প্রার্থী হাবিবুর রহমান লড়ছেন দলীয় প্রতীক ‘কাঁঠাল’ নিয়ে। আর ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী শফিকুল ইসলাম লড়ছেন তাদের দলীয় প্রতীক ‘হাতপাখা’ নিয়ে। তবে এই দুই প্রার্থী নগরীর কোথায় নির্বাচনি প্রচারণা চালিয়েছেন তা জানা যায়নি। আগামী ৩০ জুলাই রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply