প্রতারণার ফাঁদে পড়ে উপবৃত্তির টাকা খোয়ালো ১৫ ছাত্রী

12/07/2018 1:06 am0 commentsViews: 25

স্টাফ রিপোর্টার: মোবাইল প্রতারক চক্রের ফাঁদে পড়ে পবার নওহাটা মহিলা ডিগ্রি কলেজের অন্তত: ১৫জন ছাত্রী গত ২দিনে তাদের উপবৃত্তির টাকা খুইয়েছেন। এ ব্যাপারে পবা থানায় অভিযোগ করেছেন ছাত্রীসহ কলেজ অধ্যৰ কাউসার আলী।
জানা যায়, এবারের এইচএসসি পরীৰা দেয়া ছাত্রী সুরাইয়া খাতুন, শর্মিলা খাতুন, তাহেরা ইয়াসমিন, মাইশ্যা খাতুন, বিথি খাতুন আঁখি খাতুনের কাছে ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের রকেট কর্তৃপৰ পরিচয়ে, আবার কারো কাছে শিৰা মন্ত্রনালয়ের পরিচয়ে ফোন করা হয়। এরপর ছাত্রীদের জানায় তাদের একাউন্টে ২১শ’ টাকা পাঠানো হয়েছে। আরো ২১শ’ টাকা পাঠানো হবে। এই বলে ছাত্রীদের কাছে জানতে চায় পিন নম্বরসহ কিছু তথ্য। এভাবে প্রলোভন দিয়ে গত ২ দিনে কলেজের অন্ততঃ ১৫ জন ছাত্রীর উপবৃত্তির টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র। পরে ছাত্রীরা জানতে পারে তাদের অন্তত: ৩ জনের নিকট থেকে ০১৭৪৫৮৬৩৭১৩-৪ নম্বরে টাকা নেয়া হয়েছে।
কলেজ অধ্যৰ কাউসার আলী বলেন, প্রতিষ্ঠানের ছাত্রীদের উপবৃত্তির টাকা উত্তোলন করতে আগে কোন সমস্যা হয়নি। হঠাৎ করে মোবাইল প্রতারক চক্র কৌশলে ছাত্রীদের মোবাইল নম্বর ও পিন জেনে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। তিনি ডাচ্‌-বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং রকেট কাস্টমার কেয়ার সেন্টার নগরীর নিউমার্কেট শাখায় অভিযোগ জানালে বলা হয়, যে নম্বরটি থেকে ফোন বা খুদে বার্তা পাঠানো হয়েছে সেটি তাদের নয়। রকেটের নিজস্ব নাম্বারে (+) চিহৃটি নেই। কোন প্রতারক চক্র এটি করেছে। ফলে টাকা উদ্ধার হবে কি-না তা জানাতে পারেনি কর্তৃপৰ। এ ব্যাপারে পবা থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।
রাজশাহী মোবাইল ব্যাংকিং এন্ড এজেন্ট ব্যাংকিং অফিসের সিনিয়র কমপেৱন্সি ম্যানেজার সাইদ আল ইনতাজ এর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি প্রতারক চক্রের কাজ। সাইবার আইনে মামলা করলে বিভিন্ন তদন্তে আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে। এই চক্রকে ধরতে তাদের সার্বিক সহায়তা থাকবে।
পবা থানা অফিসার ইনচার্জ এসএম মাসুদ পারভেজ বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। মোবাইল ট্যাকিং-এর মাধ্যমে অপরাধিদের সনাক্তসহ আটকের পদৰেপ নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply