থাইল্যান্ডে পর্যটকবাহী নৌযান ডুবে অর্ধশতাধিক নিহতের শঙ্কা

08/07/2018 1:04 am0 commentsViews: 6

এফএনএস ডেস্ক: থাইল্যান্ডের পশ্চিম উপকূলীয় দ্বীপ ফুকেটের কাছে পর্যটকবাহী একটি নৌকা ডুবে প্রায় ৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে আশঙ্কা করছে কর্তৃপৰ। এ ঘটনায় ৩৩ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ অনৱত ২৩ জনের সন্ধানে ডুবুরিদের পাশাপাশি হেলিকপ্টার মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স। বৃহস্পতিবার উল্টে যাওয়া নৌকাটিতে মোট ১০৫ আরোহী ছিলেন। এদের মধ্যে থাই ক্রু ও ট্যুর গাইড ১২ জন, বাকি ৯৩ জনই চীনা পর্যটক বলে স’ানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। এ পর্যনৱ ৪০ জনের বেশি আরোহীকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। গত শুক্রবার বিকেল পর্যনৱ ৩৩টি মরদেহ উদ্ধারের খবর দিয়েছেন প্রাদেশিক গভর্নর নোরাফাত পস্নদথং জানিয়েছেন। ডুবে যাওয়া নৌযান ফিনিক্সের মধ্যে আরও কিছু মৃতদেহ থাকতে পারে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। নিখোঁজদের সন্ধানে ডজনের বেশি ডুবুরির তৎপরতার চিত্র দেখা গেছে টেলিভিশন ফুটেজে। শানৱ সমুদ্র ও পরিষ্কার আকাশের কারণে দিনব্যাপী অভিযান চালাতেও কোনো ধরনের সমস্যা হয়নি।
মেরিন পুলিশ বলছে, তাদের ডুবুরিরা ১৩০ ফিট গভীরে গিয়েও অনুসন্ধান অব্যাহত রেখেছেন। একটি দিন ও রাত পার হয়ে গেছে,” ডুবে যাওয়া নৌকাটির ভেতর কাউকে জীবিত পাওয়া যাবে না বলে শঙ্কার কথা জানিয়েছেন মেরিন বিভাগের উপ মহাপরিচালক ক্রিতপেচ চাইচুয়াই। নৌকাডুবির ঘটনার তদনৱ শুরম্ন করেছে পুলিশ। উপকূল থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে উল্টে যাওয়া নৌযানটি নিবন্ধিত ছিল, ঘটনার সময় সেটিতে অতিরিক্ত যাত্রী ছিলো না বলেও জানিয়েছে তারা। বর্ষার মাঝামাঝি হওয়ায় থাইল্যান্ডের পশ্চিম উপকূলের ভারত মহাসাগরে প্রায়ই দমকা বাতাস ও ঝড়ের দেখা মেলে। এ সময় নৌকা নিয়ে সমুদ্রে নামার ৰেত্রে গাইডদের আরও সতর্ক হওয়া উচিত বলে মনৱব্য করেছেন ট্যুরিস্ট পুলিশ ব্যুরোর উপপ্রধান মেজর জেনারেল সুরাচাতে হাকপার্ন। সাধধান হও, প্রকৃতি কৌতুকের বিষয় নয়। ট্যুরিস্ট পুলিশ আগেই ফুকেটের ব্যবসায়ীদের উপকূলে নৌকা চালানোর ব্যাপারে সতর্ক করেছিল; কিন’ তারা সে নির্দেশনা লঙ্ঘন করেছে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুকে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন হাকপার্ন। এ বিষয়ে কোনো ধরনের মনৱব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে ফিনিক্সের পরিচালনাকারী কর্তৃপৰ টিসি বস্নু ড্রিম। সড়ক ও নৌ নিরাপত্তার ৰেত্রে থাইল্যান্ডের রেকর্ড ভালো নয় বলে জানিয়েছে রয়টার্স। অনেক ট্যুর অপারেটরই গাড়িতে সিটবেল্ট বাঁধা কিংবা নৌকায় লাইফজ্যাকেট রাখার মতো নিরাপত্তার সাধারণ নিয়মকানুন মানতে চান না বলেও অভিযোগ আছে। বৃহস্পতিবার থাইল্যান্ডে পর্যটকবাহী আরও একটি নৌকা উল্টে গেলেও সেখানে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে জানিয়েছে পোতাশ্রয়ের ওয়াটার সেইফটি বিভাগ। উল্টে যাওয়া ফিনিক্সের আরোহীদের উদ্ধার অভিযানে সহযোগিতা করতে ফুকেটে একটি দল পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে ব্যাংককের চীনা দূতাবাস। নাগরিকদের সহায়তা দিতে দৰিণ থাইল্যান্ডের কনসুলেট দপ্তরের কর্মীরাও ঘটনাস’লে অবস’ান করছেন বলে নিশ্চিত করেছে তারা। সামপ্রতিক বছরগুলোতে থাইল্যান্ডে চীনা পর্যটকদের চাপ বাড়ছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স। সক্রিয় অনুসন্ধান ও উদ্ধার প্রচেষ্টার জন্য থাইল্যান্ডের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছে চীন, বেইজিংয়ে নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ মনৱব্য করেছেন চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু ক্যাং।

Leave a Reply