ঐতিহাসিক ফারাক্কা লং মার্চ দিবস আজ

16/05/2018 1:06 am0 commentsViews: 7

সোনালী ডেস্ক : ১৬ মে ফারাক্কা অভিমুখে ঐতিহাসিক লংমার্চ দিবস। ’৭৫ সালের ২১ এপ্রিল গঙ্গায় ফারাক্কা বাধ তৈরি করে ভারতের একতরফা পানি প্রত্যাহারের প্রতিবাদে মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী ১৯৭৬ সালের এই দিনে ফারাক্কা অভিমুখে লংমার্চ করেছিলেন। সারাদেশ থেকে অগণিত মানুষ রাজশাহী মাদ্রাসা মাঠে এসে জমায়েত হয়। সেখান থেকে শুর্ব হয় লংমার্চ।
ভাসানীর নেতৃত্বে ফারাক্কার বির্বদ্ধে তীব্র জনমত গড়ে ওঠে। দেশবাসী দাবি তোলে বাংলাদেশের প্রতি ভারতের অন্যায় আচরণের বিষয়টি আন্তর্জাতিক আদালতে উত্থাপনের।” মৃত্যুর মাত্র ৬ মাস পূর্বে ৯৬ বছর বয়সে অসুস্থ শরীর নিয়ে মওলানা ভাসানী ওই লংমার্চ করেছিলেন। ভাসানীর প্রতি শ্রদ্ধা এবং দেশবাসীর দাবির প্রেৰিতে ফারাক্কার বিষয়টি জাতিসংঘে উত্থাপন করা হয়। বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন ফারাক্কা দিবসে আলোচনা-সেমিনারের আয়োজন করে থাকে। ফারাক্কার কারণে বাংলাদেশের অব্যাহত ভোগান্তির কারণে এ দিবসটি এখনো খুব তাৎপর্যবহ।
১৯৭৬-এর ১৬ মে বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি গুর্বত্বপূর্ণ ঘটনা সংঘটিত হয়। ঐদিন মাওলানা হামিদ খান ভাসানী ফারাক্কা বাঁধ নির্মাণের প্রতিবাদে ঐতিহাসিক লং মার্চে নেতৃত্ব দেন। ভারত কলকাতা বন্দরকে পলি জমা থেকে রৰা করার জন্য ১৯৭০ সালে ফারাক্কা বাঁধ নির্মাণ কাজ সমাপ্ত করে। কিন্তু এটা বাংলাদেশের দৰিণ পূর্বাঞ্চলে ব্যাপক পরিবেশ বিপর্যয় ডেকে আনে। ভারতের একতরফা গঙ্গার পানি প্রত্যাহারের কারণে যে শুধু বাংলাদেশের পরিবেশের ৰতি হচ্ছে তা নয় ; বরং এর ফলে বাংলাদেশের কৃষি, শিল্প, বন ও নৌ-পরিবহন ব্যাবস্থা ব্যাপক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছে।
এদিকে ফারাক্কা লং মার্চ দিবস উপলক্ষে নদী ও পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন বাংলাদেশের উদ্যোগে আজ বুধবার রাজশাহী মহানগরীর মালোপাড়াস্থ অনুরাগ কমিউনিটি সেন্টারে সকাল ১০ টায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে সংগঠনটির বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

Leave a Reply