বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি শ্রমিক-কর্মকর্তাদের সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ১৫

16/05/2018 1:06 am0 commentsViews: 14

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: পার্বতীপুরে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে ধর্মঘটী শ্রমিকদের সাথে খনি কর্মকর্তাদের এক সংঘর্ষে ১ পুলিশসহ উভয়পৰের ১৫ জন আহত হয়েছেন। শ্রমিক ধর্মঘটের তৃতীয় দিন মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে খনি গেটের সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন, বড়পুকুরিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের কনস্টেবল শাহিনুর, কয়লাখনির মহাব্যবস্থাপক এবিএম কামরুজ্জামান, ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) সানাউল্যা, ব্যবস্থাপক (নিরাপত্তা) সৈয়দ ইমাম হাছান, ব্যবস্থাপক সাজিউল ইসলাম সাজু, জাহেদুর রহমান, সহকারী ব্যবস্থাপক কমল মলিৱক, সাজ্জাদ হোসেন, মুন্িস মিয়া, আবু সায়েম, খনি শ্রমিকদের মধ্যে রাখিব হোসেন, এনামুল হক, মোতালেব হোসেন, আয়জার রহমান ও কয়লা ব্যবসায়ী গোলাম মোস্তফা। আহতদের দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, পার্বতীপুর ও ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেৱঙে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশ ও প্রত্যৰদর্শি সূত্রে জানা গেছে, দিনাজপুর ও ফুলবাড়ীতে বসবাসকারী খনির কয়েকজন কর্মকর্তা মঙ্গলবার সকালে খনিতে প্রবেশ করতে গেলে ধর্মঘটী শ্রমিকরা বাধা দেন। এসময় ভিতরে অবস্থানরত কর্মকর্তারা এগিয়ে এলে উভয়পৰের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়।
খনি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি রবিউল ইসলাম রবি ও সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান বলেন, গত রোববার থেকে ১৩ দফা দাবিতে শ্রমিকরা শান্তিপূর্ণভাবে ধর্মঘট পালন করে আসছে। কিন্তু গতকাল সকালে খনি কর্মকর্তারা পরিকল্পিতভাবে শ্রমিকদের উপর হামলা করে। বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী হাবিব উদ্দিন আহমদ বলেন, ধর্মঘটের নামে শ্রমিকরা গত তিন দিন ধরে খনি গেটে অবস্থান নিয়ে খনি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের অবরুদ্ধ করে রেখেছেন। বাইরে অবস্থানকারী কয়েকজন কর্মকর্তা খনিতে প্রবেশ করতে গেলে শ্রমিকরা তাদের উপর হামলা করেন। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য খনির ভিতর থেকে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ছুটে আসেন। কিন্তু শ্রমিকরা লাঠিসোটা এবং ইট পাটকেল নিয়ে তাদের উপরও হামলা করেন। এতে করে ১০/১২ জন কর্মকর্তা আহত হন বলে তিনি দাবি করেন।
এদিকে উদ্ভুত পরিস্থিতি নিরসনের লৰে বিকেল ৪টার দিকে বড়পুকুরিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহানুল হক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ফুলবাড়ী সার্কেল) রফিকুল ইসলাম ও পার্বতীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাবিবুল হক প্রধান ধর্মঘটী শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ও এলাকাবাসীদের নিয়ে ত্রিপৰীয় বৈঠকে বসেন। সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বৈঠক চলছিল।

Leave a Reply