যত্রতত্র পুকুর খনন বন্ধে চাই কার্যকর ব্যবস্থা

20/04/2018 1:04 am0 commentsViews: 79

মাছ চাষে ভালো লাভ হওয়ায় অনেকেই ঝুঁকে পড়েছে পুকুর খননে। রাজশাহীর বিভিন্ন উপজেলায় ফসলি জমিতে পুকুর খননের হিড়িকে কৃষিতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির খবর নতুন নয়। কিনৱু বিষয়টি নিয়ে সংশিস্নষ্টদের দায়সারা পদৰেপে পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল হয়ে উঠেছে। নতুন নতুন পুকুর খননের খবর আসছে পত্রিকায়।
সম্প্রতি মোহনপুর উপজেলার মগরা বিলের একমাত্র পানি নিষ্কাশন খালটি বন্ধ করে পুকুর খননের অভিযোগ উঠেছে। এর ফলে প্রায় দু’শ বিঘা জমির বোরো ধান জলাবদ্ধতার কবলে পড়েছে। আশপাশের অন্যান্য বিলের পানি জমে কয়েক হাজার বিঘা জমির ফসলহানির আশঙকা করছেন চাষিরা। বিষয়টি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা স্বীকার করে নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানাবার কথা বলেছেন। আর তদনৱ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা কর্মকর্তা।
এমন আশ্বাস এবং কোনো কোনো ৰেত্রে পুকুর খনন বন্ধে অভিযান পরিচালনার পরও পরিস্থিতির তেমন উন্নতি যে হচ্ছে না সেটা নতুন নতুন পুকুর খননের ঘটনাই প্রমাণ করে। কৃষি জমিতে ইট ভাটা নির্মাণ নিয়েও একই কথা বলা চলে।
কৃষিখাতে এমন বিশৃঙ্খলা অসহনীয় হয়ে ওঠায় জর্জরিত কৃষকেরা আন্দোলনে নামতে বাধ্য হয়েছেন। কৃষক সংগঠনের পৰ থেকে সমাবেশ ও জেলা প্রশাসনে স্মারকলিপিও দেওয়া হয়েছে। জেলা জুড়ে অপরিকল্পিতভাবে পুকুর খনন ও ইটভাটা স্থাপন বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থার দাবিতে কৃষক প্রতিনিধিরা জোর দাবি জানিয়েছেন।
বর্তমান সরকার যেখানে কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে সচেষ্ট সেখানে এমন অবস্থা দীর্ঘদিন ধরে কিভাবে চলে আসছে সেটা মোটেই উপেৰার বিষয় নয়। শুধু কৃষিই নয়, এ থেকে আইন-শৃঙ্খলার অবনতিও ঘটছে। তাই বিষয়টির গুরুত্ব বিবেচনা করে জরম্নরিভিত্তিতে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়াই সকলের দাবি।

Leave a Reply