ঘুষ নেয়ার অভিযোগে এক কর্মকর্তা সাময়িক বরখাসৱ

17/04/2018 1:02 am0 commentsViews: 18

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার চাটমোহর উপজেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাদের অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ তুললেন সেবাগ্রহীতা ভুক্তভোগী মানুষ। একই সাথে তাৎ-ৰনিক সেবা বঞ্চিত মানুষের সমস্যা সমাধানে কাজ করার নির্দেশ দিলেন দুদুক কমিশনার।
দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সম-ন্বিত কার্যালয় পাবনার আয়োজনে সোমবার চাটমোহর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে গণশুনানি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দুর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার (তদনৱ) এ এফ এম আমিনুল ইসলাম।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার অসীম কুমারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) রুহুল আমিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস, দুদক প্রধান কার্যালয়ের পরিচালক (প্রতিরোধ ও গণসচেতনতা) মনিরুজ্জামান, দুদক রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক আব্দুল আজিজ ভূঁইয়া, দুদক পাবনা জেলা সমন্বিত কার্যা-লয়ের উপ-পরিচালক আবু বকর সিদ্দিক, উপজেলা চেয়ারম্যান হাসা-দুল ইসলাম হীরা প্রমুখ।
গণশুনানিতে উপসি’ত চাটমোহর উপজেলার দোলং গ্রামের রিপন হোসেনের অভিযোগের ভিত্তিতে চাটমোহর ডিগ্রি কলেজের অধ্যৰ মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে তদনেৱর সিদ্ধানৱ নেয়া হয় এবং তদনেৱ অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস’া গ্রহণ করা হবে বলে জানান দুদুক কমিশনার।
ফৈলজানা ইউনিয়নের উপ-সহকারী কর্মকর্তা (ভূমি) শরিফুল ইসলামের বিরুদ্ধে জমির খাজনা খারিজ করে দেয়ার নাম করে মোটা অঙেকর ঘুষ নেয়ার অভিযোগে তাকে সাময়িক বরখাসৱ করার নির্দেশ দেন দুদক কমিশনার। চাটমোহর রেলস্টেশন-মাস্টার মাসুম আলী খানের বিরুদ্ধে টিকিট কালোবাজিরীর অভিযোগে তাকে শোকজ করার নির্দেশ দেয়া হয়। এছাড়া পাবনা পলস্নী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ না দেবার অনেকগুলো অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী মানুষ।

Leave a Reply