নির্মাণ সামগ্রীর মূল্যবৃদ্ধি কি স্বাভাবিক?

16/04/2018 1:04 am0 commentsViews: 16

নির্বাচনের বছর যখন দেশজুড়ে নতুন নতুন উন্নয়ন পরিকল্পনার ঘোষণা আসছে ঠিক তখনই নির্মাণ সামগ্রীর অগ্নিমূল্য অস্বাভাবিক মনে হতেই পারে। কারণ, নির্বাচনকে সামনে রেখে নানা ধরনের খেলা শুর্ব হয়। ষড়যন্ত্র-চক্রান্তের জাল বিছাতে শুর্ব করে স্বার্থবাদী মহল। তাই অবকাঠামো উন্নয়নের গতি বিঘ্নিত করতে নির্মাণ সামগ্রীর অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি ঘটছে কি-না, প্রশ্ন তোলা দোষের বলা যাবে না।
প্রকাশিত খবরে জানা গেছে, বিগত কয়েক মাসের মধ্যে নির্মাণ সামগ্রীর মূল্যবৃদ্ধি পেয়েছে কয়েকগুণ। প্রতি টন রডের দাম বেড়েছে ৫০ হাজার টাকা থেকে ৭২ হাজার টাকা, প্রতি ব্যাগ সিমেন্ট ৩৭০ টাকা হতে ৪৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ইটের দাম বেড়েছে প্রতি হাজারে ৫০০ টাকা। অন্যান্য সামগ্রীর দামও বেড়েছে কয়েকগুণ। আর দ্বিগুণ হয়েছে নির্মাণ সামগ্রীর পরিবহন খরচ। ফেলে নির্মাণ কাজে দেখা দিয়েছে স’বিরতা। বিপাকে পড়েছেন রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ও ডেভেলপার কোম্পানিগুলো। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স’ায়ী কমিটির বৈঠকেও বিষয়টি আলোচনায় উঠেছে। সেখানে রডের দাম বৃদ্ধির জন্য মালিকদের সিন্ডিকেটকে দায়ী করা হয়েছে।
বিষয়টি মানতে পারেনি রি-রোলিং মিল ও স্টিল মিল মালিকপৰ। তারা রডের দাম বৃদ্ধির কারণ হিসেবে ঋণের সুদহার বৃদ্ধি, রডের কাঁচা মালের দাম বৃদ্ধি, বন্দর সমস্যা, গ্যাস ও বিদ্যুৎ সমস্যার কথা জানিয়েছেন। অন্যদিকে রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহাব) মূল্যবৃদ্ধির কারণে ব্যক্তি মালিকানাধীন ভবন নির্মাণ কাজ বন্ধ করার হুমকি দিয়েছে বলেও জানা গেছে। কারণ, নির্মাণ সামগ্রীর মূল্যবৃদ্ধির কারণে ফ্ল্যাটের দাম ২০ থেকে ২২ শতাংশ বেড়ে যাবে। ফলে এই ব্যবসা মুখ থুবড়ে পড়তে বাধ্য।
শুধু তাই নয়, নির্মাণ কাজে স’বিরতার ফলে কমপৰে ৫০ ভাগ নির্মাণ শ্রমিক বেকার হয়ে পড়ার আশঙ্কাও সৃষ্টি হয়েছে। লৰ লৰ শ্রমিকের কর্মহীন হয়ে পড়ার পেছনে নির্মাণ সামগ্রী ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটকেই দায়ী করেছে নির্মাণ শ্রমিকদের সংগঠন ইনসাব। এ নিয়ে আন্দোলনের হুমকিও দেয়া হয়েছে।
বিষয়টিকে ছোট করে দেখার অবকাশ নেই। এই সরকারের উন্নয়নের ধারা বাধাগ্রস্ত করে নির্বাচনের আগে ফায়দা লোটার কথাও উড়িয়ে দেওয়া যায় না। তাই উদ্ভূত সমস্যা গুর্বত্বসহকারে নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস’া গ্রহণ করা জর্বরি হয়ে উঠেছে। নির্মাণ সামগ্রীর অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি স্বাভাবিক কি-না সেটা জানতে চায় মানুষ।

Leave a Reply