গ্যাসের দাম বৃদ্ধি কি সহনীয় হবে ?

04/03/2018 1:04 am0 commentsViews: 22

এক বছর যেতে না যেতেই আবারও গ্যাসের দাম বৃদ্ধির আলামত দেখা যাচ্ছে। তবে এবার তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) আমদানির ফলে এটা করতে হচ্ছে বলে জানা গেছে। দেশে উৎপাদিত গ্যাস যে দামে বিক্রি হচ্ছে এলএনজি আমদানির পর তার দাম প্রায় দ্বিগুণ বেড়ে যাওয়াতেই এমনটি না করে পারা যাচ্ছে না বলা হয়েছে। একই সাথে নির্বাচনের বছর গ্যাসের দাম বৃদ্ধি যেন জনজীবনে বড় ধরনের চাপ সৃষ্টি না করে সেদিকে দৃষ্টি দেয়ার আশ্বাসও পাওয়া গেছে।
জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর কথা মতে এলএনজি আসার পর বিদ্যুৎসহ শিল্প ও বাণিজ্যিক সংযোগে মূল্য সমন্বয় করার প্রয়োজনেই গ্যাসের দাম বৃদ্ধি। তবে আবাসিক গ্রাহকদের বিষয়ে তিনি কিছু বলেননি। মাত্র গতবছর ফেব্রম্নয়ারিতেই সব খাতেই গ্যাসের দাম গড়ে ২২ দশমিক ৭০ শতাংশ বাড়ানোর ফলে প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের গড় মূল দাঁড়িয়েছিল ৭ টাকা ৩৫ পয়সা। এখন এলএনজি আমদানির পর প্রতি ঘনমিটার গ্যাস (প্রাক্কলিত) গড়ে ১৩ টাকার কমে বিক্রি না করে উপায় থাকবে না বলা হয়েছে। গ্যাসের বড় ধরনের ঘাটতি পূরণ করতেই এমন অবস’ার সৃষ্টি হয়েছে।
বর্তমানে দেশে ২ হাজার ৬৬৭ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহের পরও ঘাটতি রয়েছে ১হাজার মিলিয়ন ঘনফুটেরও বেশি। ফলে শিল্প, বিদ্যুৎ, সারসহ সব খাতেই বিদ্যমান ঘাটতি উৎপাদন ব্যাহত করছে। দ্রম্নত এই পরিসি’তি মোকাবিলার জন্যই এলএনজি আমদানির বিকল্প ছিল না। এখন বেশি দামে গ্যাস নিয়েও যদি উৎপাদন বৃদ্ধি ঘটে তবে পরিসি’তি সামাল দেয়া অসম্ভব হবে না বলেই সংশিস্নষ্টদের ধারণা।
এর ফলে বিদ্যুতের নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ নিশ্চিত হলে ব্যবসা-বাণিজ্যসহ অর্থনীতির সার্বিক উন্নতি আরও গতিশীল হয়ে উঠবে সন্দেহ নেই। ফলে সব কিছু সহনীয় পর্যায়ে থাকবে, এমনটাই আশা করা হচ্ছে।
এ ভাবে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি যদি সহনীয় পর্যায়ে থাকে, জীবনযাত্রায় এর চাপ যদি সামাজিক অসি’রতার কারণ না হয় তবে এলএনজি আমদানির ফল ইতিবাচক হবে, সন্দেহ নেই। এর অন্যথা নির্বাচনের বছরে জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধিতে জনজীবনকে অসি’র করে তুলতে পারে, বিষয়টা মাথায় রেখেই সুচিনিৱত পদৰেপ নেয়া সবার জন্য মঙ্গলজনক হবে, জোর দিয়ে বলা যায়।

Leave a Reply