ফ্লোরিডার স্কুলে গুলি: এফবিআইয়ের কড়া সমালোচনা ট্রাম্পের

19/02/2018 2:02 am0 commentsViews: 19

এফএনএস ডেস্ক: ফ্লোরিডার হাই স্কুলে বন্দুকধারীর গুলিতে ১৭ জন নিহতের ঘটনায় এফবিআইয়ের ব্যর্থতার কড়া সমালোচনা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এফবিআই ‘ট্রাম্প শিবিরের সঙ্গে রাশিয়ার আঁতাত প্রমাণের চেষ্টায় বেশি সময় ব্যয় করায়’ এ ধরণের ঘটনা ঘটার সুযোগ হয়েছে বলে মনৱব্য করেছেন ট্রাম্প। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে রিপাবলিকান শিবিরের সঙ্গে রাশিয়ার কোনো সংযোগ ছিল না, শনিবারের টুইটেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট এ দাবি পুনর্ব্যক্ত করেন বলে খবর বিবিসির।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হসৱক্ষেপের অভিযোগে ১৩ রম্নশ নাগরিক ও তিন প্রতিষ্ঠানের বিরম্নদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ এনেছে এফবিআই। এই খবরের মধ্যেই ট্রাম্প ফ্লোরিডা হাই স্কুলের বন্দুকধারীকে থামাতে এফবিআইয়ের ব্যর্থতার সমালোচনা করলেন। ফ্লোরিডার স্কুলে গুলি চালানো বন্দুকধারী সম্পর্কে পাওয়া সমসৱ ইঙ্গিত বুঝতে এফবিআই ব্যর্থ হয়েছে। এটা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। তারা ট্রাম্প শিবিরের সঙ্গে রাশিয়ার আঁতাত প্রমাণের চেষ্টায় বেশি ব্যসৱ। সেখানে কোনো আঁতাত ছিল না। মূল কাজে ফিরে যাও এবং আমাদের গর্বিত কর, বলেন ট্রাম্প। গত বুধবার পার্কল্যান্ডের হাই স্কুলে গুলিবর্ষণের ঘটনার পর এফবিআই স্বীকার করে, সন্দেহভাজন বন্দুকধারী নিকোলাস ক্রুজ সম্বন্ধে আগেই তথ্য পাওয়ার পরও তাকে থামাতে ব্যর্থ হয়েছে তারা।
এফবিআই জানায়, চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি ক্রুজের ঘনিষ্ঠ একজনের কাছ থেকে মার্জরি স্টোনম্যান ডগলাস হাই স্কুলের এ বরখাসৱ শিক্ষার্থীর ‘বন্দুকের মালিকানা, মানুষ হত্যায় আগ্রহ, অস্থির আচরণ, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিরক্তিকর পোস্ট দেওয়ার’ বিষয়ে তথ্য পেয়েও এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। ক্রুজ স্কুলে হামলা চালাতে পারে বলেও ওই ব্যক্তি এফবিআইকে সতর্ক করেছিলেন। অন্য এক ব্যক্তি গত বছরের সেপ্টেম্বরে ইউটিউবে লেখা ক্রুজের বিরক্তিকর মনৱব্যের ব্যাপারেও আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানিয়েছিলেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম স্ন্যাপচ্যাটে নিজেকে আঘাত করার প্রমাণ উপস্থাপনের পর ২০১৬ সালে স্থানীয় পুলিশ এবং শিশু ও পারিবারিক সেবা বিভাগও ক্রুজের ব্যাপারে অনুসন্ধান চালিয়েছিল, খবর মার্কিন গণমাধ্যমগুলোর। ২০১২ সালের পর যুক্তরাষ্ট্রের স্কুলে হওয়া সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী এ গুলির ঘটনার পর অস্ত্র আইন নিয়েও নতুন করে আলোচনা শুরম্ন হয়েছে। গত শনিবার ফোর্ট লডারডেলে মার্জরি স্টোনম্যান ডগলাস হাই স্কুলের বেঁচে যাওয়া শিক্ষার্থীদের শোভাযাত্রায় অস্ত্র আইন কঠোর করার দাবি জানানোর পাশাপাশি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে ন্যাশনাল রাইফেল অ্যাসোসিয়েশনের (এনআরএ) কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা নেওয়ায় ডোনাল্ড ট্রাম্পেরও সমালোচনা এসেছে। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি তাদের অভিভাবক ও রাজনীতিবিদসহ হাজারও মানুষ এই শোভাযাত্রায় অংশ নেয়। তাদের হাতে ছিল ‘আর বন্দুক নয়’ ও ‘যথেষ্ট হয়েছে’ লেখা পস্ন্যাকার্ড।
অস্ত্র আইন বিষয়ে বেশ কয়েকবারই অবস্থান বদলালেও সামপ্রতিক বছরগুলোতে ট্রাম্প মার্কিন সংবিধানের দ্বিতীয় সংশোধনীর পক্ষেই কথা বলছেন; যাতে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের অস্ত্র রাখা ও বহনের অধিকার দেওয়া হয়েছে। অপরদিকে নির্বাচনী প্রচারে রিপাবলিকান শিবিরের সঙ্গে মস্কোর সংযোগের কথা বরাবরই অস্বীকার করে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। রাশিয়াও মার্কিন নির্বাচনে হসৱক্ষেপের কথা উড়িয়ে দিয়েছে।
এ বিষয়ে মার্কিন কংগ্রেস ও বিচার বিভাগ বেশ কয়েকটি তদনৱ চালাচ্ছে। এর মধ্যে স্পেশাল কাউন্সেল রবার্ট মুলারের তদনেৱ রাশিয়ান প্রতিষ্ঠান ও নাগরিকদের নাম উঠে আসে। গত শনিবার রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ রম্নশ নাগরিক ও প্রতিষ্ঠানের বিরম্নদ্ধে মার্কিন নির্বাচনে হসৱক্ষেপের অভিযোগকে ‘বাজে কথা’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন। এ বিষয়ে ‘সুনির্দিষ্ট তথ্য’ দেখা ছাড়া আর কোনো মনৱব্য করবেন না বলেও জানিয়েছেন তিনি।

Leave a Reply