এ বছরেই দৃশ্যমান হবে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়

15/02/2018 2:07 am0 commentsViews: 100

স্টাফ রিপোর্টার: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় রাজশাহীর মানুষের জন্য সব চেয়ে বড় উপহার।
গতকাল বুধবার সকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেকহা) হাসপাতালের সভাকৰে আয়োজিত রাজশাহী বিভাগের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও চিকিৎসকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সকল কথা বলেন।
এসময় হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ফজলে হোসেন বাদশা এমপি রামেক হাসপাতালের সংকট মোকাবিলায় চিকিৎসক, নার্সসহ প্রয়োজনীয় জনবল নিয়োগসহ হাসপাতালের শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধি ও ভবনগুলো ১০তলায় উন্নীত করার দাবি জানান। এছাড়া কার্ডিয়াক সার্জারীর জন্য দৰ জনবল ও প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সরবরাহের জন্য তিনি দাবি জানান।
এর পরিপ্রেৰিতে মন্ত্রী বলেন, চিকিৎসক ও নার্স সংকট মোকাবিলায় চলতি বছরেই আরো ৪ হাজার ডাক্তার ৬ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হবে। এছাড়া গ্রামের মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে আরো এক হাজার অত্যাধুনিক কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা হবে। এ জন্য কনসালটেন্টদের গ্রামে পোস্টিং দেয়া হয়েছে। তিনি চিকিৎসক ও নার্সদের মা-বোনের মমতা দিয়ে রোগীকে সেবা প্রদান করার আহবান জানান। এছাড়াও তিনি বলেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ শুর্ব হয়েছে। এ বছরেই শুর্ব হবে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যারয়ের কাজ এবং রাজশাহী ডেন্টাল কলেজ চালু করতে দ্র্বত তিনি প্রকল্প পরিচালক নিয়োগের ঘোষণা দেন।
এদিকে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক অগ্রগতি উপস্থাপন করে উপাচার্য ডা. মাসুম হাবিব বলেন, রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের সরকারি-বেসরকারি সব মেডিকেল কলেজ, নার্সিং কলেজ, ও অন্যান্য মেডিকেল ইনস্টিটিউট এ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্তি শেষ পর্যায়ে। জমি অধিগ্রহণের প্রক্রিয়া ও ডিপিপি প্রণয়নের কাজ চলছে। রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ইতোমধ্যে আরএডিপি’র (সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি) অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় এ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেট বরাদ্দ সম্পর্কে সংশিৱষ্ট মন্ত্রণালয়কে অবহিত করা হয়েছে বলে উপাচার্য জানান।
সভায় রামেক হাসপাতালর পরিচালকের সভাতিত্বে বক্তব্য রাখেন, হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও রাজশাহী সদর আসনের সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা, রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (রামেবি) উপাচার্য প্রফেসর ডা. মাসুম হাবিব, নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাসিকের সাবেক মেয়র এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন, আ’লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য নুর্বল ইসলাম ঠান্ডু, রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান, রামেক’র অধ্যৰ প্রফেসর ডা. আনোয়ার হাবিব, উপাধ্যৰ ডা. মহিবুল হাসান, রাজশাহী বিএমএ’র সভাপতি প্রফেসর ডা. এবি সিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক ডা. নওশাদ আলী প্রমুখ।
এসময় রাজশাহী বিভাগের সকল সিভিল সার্জন, বিএমএ ও স্বাচিপ নেতৃবৃন্দসহ রামেক হাসপাতালের চিকিৎসক, কর্মকর্তা, নার্স ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply