স্টাফ রিপোর্টার: সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নৌকার পৰে নিরসলভাবে পরিশ্রম করে বিজয়ী করায় রাজশাহীর সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া অঙ্গনের মানুষদের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন রাসিকের নবনির্বাচিত মেয়র এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন। সোমবার দুপুরে মহানগরীর উপশহরস্থ নিজ বাসভবনের পাশে প্যান্ডেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।
অনুষ্ঠানে মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন বলেন, ২০০৯ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত আমি মেয়র থাকাকালে রাজশাহীর সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়াঙ্গন প্রাণোচ্ছল ছিল, প্রাণবন্ত ছিল। কিন্তু গত ৫ বছরের যেন সবকিছু থেমে গেছিল। আমি আপনাদের সহযোগিতা ও ভোটে আবারো মেয়র নির্বাচিত হয়েছি। এখন ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অঙ্গন আবার প্রাণোচ্ছল-প্রাণবন্ত হবে।
মেয়র খায়র্বজ্জামান লিটন আরও বলেন, শহিদ এএইচএম কামার্বজ্জামান স্টেডিয়াম আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার জন্য ৮৫ কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দ হয়েছিল। কিন্তু কাজ করতে না পারায় সেই বরাদ্দ ফেরত গেছে। আগামীতে স্টেডিয়ামটি আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করবো। জাতীয় পর্যায়ের খেলা রাজশাহীতে আনা হবে। এজন্য দুইটি পাঁচ তারকা মানের হোটেল করার পরিকল্পনা রয়েছে। আমি যে প্রতিশ্র্বতিগুলো দিয়েছি, আপনারা সবাই দোয়া ও সহযোগিতা করবেন, যাতে সব প্রতিশ্র্বতি বাস্তবায়ন করতে পারি।
অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব অধ্যাপক মলয় কুমার ভৌমিক, দৈনিক সোনালী সংবাদের সম্পাদক মো: লিয়াকত আলী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এসএম আবু বক্কর। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ভাষাসৈনিক আবুল হোসেন, প-িত অমরেশ রায়, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক রফিউস সামস প্যাডীসহ সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়াঙ্গনের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।