স্টাফ রিপোর্টার: বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে রাজশাহীতে পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস। গতকাল সোমবার সকালে প্রবীণ হিতৈষী সংঘ, রাজশাহী জরা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠান ও জেলা সমাজ সেবা কার্যালয় এ দিবস উপলৰে রাজশাহী শিল্প বণিক সমিতি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা ও সম্মাননা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
রোটারিয়ান ডা: ডিএম জহুর্বল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তারা বলেন, ক্রমবর্ধমান প্রবীণ জনগোষ্ঠির সমস্যা মোকাবিলার প্রধান চ্যালেঞ্জ হচ্ছে বার্ধক্য বিষয়ে পরিবার ও সংগঠনের সচেতনতা সক্রিয়তা,আগ্রহ এবং উদ্যোগের ভয়ানক রকমের ঘাটতি ও অনিহা। দেশের শিৰা, গণমাধ্যম এবং সাংস্কৃতিক কার্যক্রমে প্রবীণ অবস্থা, চ্যালেঞ্জ, চাহিদা, অধিকার এবং আমাদের করণীয় বিষয়গুলো প্রায় অনুপস্থিত। মনে রাখতে হবে যে প্রবীণদের দৰতায় আজ দেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। দেশের উন্নয়নের স্বার্থে প্রবীণদের দৰতাকে কাজে লাগাতে হবে। বক্তারা আরো বলেন, এই প্রবীণরা একদিন স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানে সেবা দিয়ে গেছেন। এতে দেশ এগিয়েছে।
এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিভাগীয় সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালক জুলফিকার হায়দার। এতে আরো বক্তব্য রাখেন প্রবীণ হিতৈষী সংঘ ও জরা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠানের সহসভাপতি ও সোনালী সংবাদের সম্পাদক মো: লিয়াকত আলী ও প্রদীপ মৃধা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রবীণ হিতৈষী সংঘ ও জরা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠানের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হাসান কবির।
অনুষ্ঠানে মা-বাবার ও শ্বশুর শাশুড়ির সেবা করার জন্য শ্রেষ্ঠ মমতাময়ী হিসেবে নির্বাচিত হন সেতারা বেগম এবং আব্দুলৱাহিল কাফি। তাদের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেয়া হয়।
এর আগে, শহিদ কামার্বজ্জামান চত্বর থেকে এক র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি আলোচনা সভায় এসে মিলিত হয়।