আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে আজ শেষ হচ্ছে ইজতেমার প্রথম পর্ব

14/01/2018 2:06 am0 commentsViews: 14

এফএনএস: আজ রোববার সকাল ১১টায় আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হচ্ছে এবারের ইজতেমার প্রথম পর্ব। চারদিন বিরতি দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দফা শুর্ব হবে ১৯ জানুয়ারি, যা ২১ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে। এদিকে, চলমান বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিন গতকাল শনিবার বাদ ফজর মাওলানা মো. নূর-এর বয়ানের মধ্য দিয়ে শুর্ব হয়েছে। কনকনে শীত ও ঘন কুয়াশা উপেৰা করে গতকাল শনিবার সকালেও দেশ-বিদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা ইজতেমা ময়দানে আসেন। এদিকে, আগামী বছর বিশ্ব ইজতেমা শুর্বর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ১১ জানুয়ারি। গত শুক্রবার রাতে কাকরাইল মসজিদে তাবলিগ মুর্বব্বিদের এক পরামর্শ সভায় ওই তারিখ নির্ধারণ করা হয় বলে ইজতেমার মুর্বব্বি মো. গিয়াস উদ্দিন জানান। গিয়াস উদ্দিন বলেন, তাবলীগ জামাতের শীর্ষ মুর্বব্বিদের এক সভার সিদ্ধান্ত মতে আগামি বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব অনুষ্ঠিত হবে ১১, ১২ ও ১৩ জানুয়ারি এবং দ্বিতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হবে ১৮, ১৯ ও ২০জানুয়ারি।
বিদেশিসহ ২ জনের মৃত্যু: টঙ্গীর তুরাগ তীরে ইজতেমায় যোগ দেওয়া মালয়েশিয়ান এক নাগরিকসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। টঙ্গীর শহীদ আহসান উলৱাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক মো. রেজাউল হক জানান, গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নূরহান বিন আবদুর রহমান (৫৫) নামের এই মালয়েশিয়ানের মৃত্যু হয়। ওজু করার পর নামাজের প্রস্তুতি নিতে গিয়ে হঠাৎ তিনি মাটিতে পড়ে যান জানিয়ে চিকিৎসক রেজাউল বলেন, ইজতেমার লোকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। কিন্তু আনার আগেই তার মৃত্যু হয়। তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এছাড়া লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চরবাইতা গ্রামের মো. রফিকুল ইসলাম (৫০) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে, জানিয়েছেন ইজতেমার মাসলেহাল জামাতের সদস্য মো. আদম আলী। তিনি বলেন, রফিকুল গত শুক্রবার রাত ১১টার দিকে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে ওই হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে ইজতেমায় আসার পথে টঙ্গীতে আবদুল মামুন ওরফে মনা (৩৩) নামে এক ব্যক্তি গাড়িচাপায় ঘটনাস্থলেই ও ইজতেমাস্থলে শ্বাসকষ্টে আজিজুল হক (৬০) নামে আরেক ব্যক্তির মৃত্যু হয়।
আখেরি মোনাজাতে বন্ধ থাকবে যে রাস্তাগুলো : বিশ্ব ইজতেমায় রোববার সকালে অনুষ্ঠেয় আখেরি মোনাজাত উপলৰে গতকাল শনিবার মধ্যরাত থেকে রোববার আখেরি মোনাজাত শেষ না হওয়া পর্যন্ত ওই এলাকার কয়েকটি রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হবে। শনিআর দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হার্বন অর রশীদ এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান। পুলিশ সুপার বলেন, আখেরি মোনাজাত উপলৰে বাড়তি নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। এজন্য মধ্যরাত থেকে আখেরি মোনাজাত শেষ না হওয়া পর্যন্ত টঙ্গী থেকে গাজীপুর চৌরাস্তা, পূবাইলের মিরেরবাজার ও আশুলিয়ার আবদুলৱাহপুরে যান চলাচল বন্ধ থাকবে। আখেরি মোনাজাত শেষ হওয়ার পর ওই রাস্তাগুলোর যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে বলে জানান পুলিশ সুপার। এ দিকে ভারতের মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভিকে নিয়ে বিতর্ক উঠার পর তিনি এবার টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না। কিন্তু এবার আখেরি মোনাজাত ও হেদায়াতি বয়ান দুটোই হবে বাংলায়। আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন বাংলাদেশের কাকরাইলের মাওলানা হাফেজ জোবায়ের। আখেরি মোনাজাতের আগে হেদায়তি বয়ান হয়, তা করবেন বাংলাদেশি মাওলানা আবদুল মতিন। প্রায় ১০০ বছর আগে ইসলামের দাওয়াতি কাজকে ত্বরান্বিত করতে মাওলানা ইলিয়াছ শাহ (রহ.) দিলিৱর নিজামুদ্দিন মসজিদ থেকে তাবলিগের কাজ শুর্ব করেন। মাওলানা ইলিয়াছের (রহ.) ছেলে মাওলানা হার্বন (রহ.)। তারই ছেলে হলেন মাওলানা সাদ কান্ধলভী। ২০১৫ সাল থেকে মাওলানা সাদ আখেরি মোনাজাত পরিচালানা করে আসছেন। এর আগে তিনি টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে শুধু তাবলিগের বয়ান দিতেন।

Leave a Reply