এফএনএস: সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণ-তায় সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস গত-কাল রোববার দেশের পুঁজিবাজারে লেনদেন হয়েছে। দিনভর ওঠানামা শেষে এদিন দেশের প্রধান পুঁজি-বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডি-এসই) সূচক বেড়েছে ২৬ পয়েন্ট। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বেড়েছে ২০ পয়েন্ট। সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দামও। এর ফলে ডিএসইতে গত বৃহ-স্পতিবার সূচক পতনের পর গতকাল রোববার উত্থান হয়েছে। তবে সিএসইতে দু’দিন সূচক পতনের পর উত্থান হয়েছে। ব্যাংক, বিমা, বস্ত্র এবং ওষুধ ও রসায়ন খাতের শেয়ারের দাম বৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে এদিন পুঁজিবাজারে উত্থান হয়েছে বলে মনে করেন বাজার সংশিৱষ্টরা।
ডিএসইর তথ্য মতে, গতকাল রোববার এ বাজারে ১১ কোটি ৮ লাখ ৯ হাজার ২৮৯টি শেয়ারের হাতবদল হয়েছে। এতে লেনদেন হয়েছে ৫১৬ কোটি ৪২ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। এর আগের কার্যদিবস লেনদেন হয়েছিলো ৫২৫ কোটি ৩৩ লাখ ৮৭ হাজার টাকা। তার আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫১৪ কোটি ৫২ হাজার টাকা। ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৬ দশমিক ৬ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৩৬৮ পয়েন্টে অবস’ান করছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস ইনডেক্স ৯ দশমিক ৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস’ান করছে ১ হাজার ২৩৯ পয়েন্টে। আর ডিএস-৩০ ইনডেক্স ৪ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮৮৯ পয়েন্টে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পা-নির মধ্যে দাম বেড়েছে ১৮৭টির, কমেছে ৯৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৪টি কোম্পানির শেয়ারের। অপর বাজার সিএসইতে সার্বিক সূচক ২০ পয়েন্ট বেড়ে ৯ হাজার ৯৮৪ পয়েন্টে অবস’ান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হওয়া কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দাম বেড়েছে ১১৯টির, কমেছে ৮১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টি কোম্পানির শেয়ার। এদিন লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩২৭ কোটি ৩৩ লাখ ৫৭ হাজার ৮৫৪ টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ২০ কোটি ৭১ লাখ ২৯ হাজার ৫০৭ টাকা। তার আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৯১ কোটি ১৬ লাখ ৯২ হাজার টাকা।