শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মত্যাগ আমাদের অনুপ্রেরণা যোগায়

14/12/2017 2:04 am0 commentsViews: 11

আজ ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। বাংলাদেশের মানুষের জন্য দিনটি শোক ও বেদনার পাশাপাশি অনুপ্রেরণারও। দেশের জন্য আত্মদানে মহিমান্বিত এদিনটি আমাদের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে যুগ যুগ ধরে। এদিনেই আমরা হারিয়েছি আমাদের সূর্যসন্তানদের। তাই প্রতি বছর ১৪ ডিসেম্বর যথাযোগ্য ভাবগাম্ভীর্যে পালিত হয় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস।
১৯৭১ সালের এই দিনে মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের প্রাক্কালে জাতিকে চরম মূল্য দিতে হয়েছে। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও তাদের এদেশীয় দোসর কুখ্যাত আলবদর বাহিনী রাতের অন্ধকারে শীর্ষস্থানীয় বুদ্ধিজীবীদের ধরে নিয়ে গিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। বাঙালি জাতিকে মেধাশূন্য ও নেতৃত্বহীন করার জঘন্য ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে দেশবরেণ্য শিৰাবিদ, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, চিকিৎসক, বিজ্ঞানী, প্রকৌশলী ও উচ্চপদস্ত সরকারি কর্মকর্তাগণ নৃশংসভাবে প্রাণ হারান।
বাংলা পিডিয়ার তথ্যমতে, একাত্তরের ২৫ মার্চ থেকে ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৯৯১ জন শিৰাবিদ, ৪৯ চিকিৎসক, ৪২ আইনজীবী, ১৬ শিল্পি-সাহিত্যিক ও ১৩ সাংবাদিক স্বাধীনতাবিরোধী ঘাতকদের হাতে প্রাণ হারিয়েছেন। এসব ব্যক্তি দেশ ও জাতির বিষয়ে ছিলেন সচেতন এবং গণবিরোধী শাসকদের বির্বদ্ধে ছিলেন সোচ্চার। তারা নিজেদের মেধা-মননে, প্রকাশ্য বা গোপন কর্মকা-ের মাধ্যমে স্বাধীনতার পৰে সক্রিয় ছিলেন। দখলদার বাহিনীর কাছে এটাই ছিল তাদের অপরাধ।
প্রতিটি সমাজে জ্ঞান ও জ্ঞানীর মর্যাদা অগ্রগণ্য। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়। আমাদের বুদ্ধিজীবীগণ ছিলেন একেকজন কলম সৈনিক, জ্ঞানের প্রদীপ্ত শিখা। অধিকার আদায়ে, স্বাধীনতার পৰে তারা নানাভাবে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। দেশ ও জাতির স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়েছেন। স্বাধীনতা ও মুক্তির আন্দোলনে তাদের আত্মত্যাগ চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।
এই আত্মত্যাগের কোনো তুলনা নেই। আত্মস্বার্থ আত্মপ্রেম নয়, বুদ্ধিজীবীদের দেশপ্রেম এবং অসীম সাহসী ভূমিকাই আমাদের প্রেরণার উৎস। তাদের আদর্শ সমুন্নত রাখার মাধ্যমেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারক হওয়া সম্ভব। এই চেতনাই সব ধরনের সংকীর্ণ স্বার্থ ও ভোগ বিলাসের লালসা পরাস্ত করতে আমাদের সাহস যোগাবে।
মুক্তিযুদ্ধের লৰ্য বাস্তবায়নে এক বৈষম্যহীন, অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গড়ার লৰ্যে দৃঢ় প্রত্যয়ে এগিয়ে যাবার দীৰা নিতে এই অকুতোভয় বুদ্ধিজীবীদের শিৰাই জাতিকে পথ দেখাবে।
জাতীয় জীবনে তাদের মহান চিন্তা ও আদর্শের প্রতিফলন ঘটানোর দায়িত্ব আমাদের সকলের। দেশ গড়ার সংগ্রামে শহীদদের দেখানো পথেই আমরা এগিয়ে যাবো-এটাই হোক শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে সবার কামনা।

Leave a Reply