স্বাধীনতার ৪৬ বছর পর ‘পাক’ কেটে ‘বাংলা’

07/12/2017 1:04 am0 commentsViews: 14

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও ভোলাহাট প্রতিনিধি: নতুন এক ইতিহাসের সাৰী হলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জর ভোলাহাট উপজেলার মানুষ। মহান স্বাধীনতার ৪৬ বছর পর ভোলাহাট উপজেলার বাংলাদেশ-ভারত সীমানেৱ থাকা ১২টি সীমানৱ পিলারের পাক কেটে সংশোধন করা হলো বাংলা।
বুধবার বিজিবি ও বিএসএফ’র উপসি’তিতে সীমানৱ পিলারে থাকা পাকিসৱানের নাম কেটে বাংলাদেশ করা হয়েছে। দীর্ঘদিন পর পিলারগুলোর ভুল সংশোধন হওয়ায় স্বসিৱ ফিরে এসেছে সাধারণ মানুষের মাঝে।
সূত্রে জানা গেছে, ’৭১ সালের মহান স্বাধীনতার যুদ্ধ শেষ হওয়ার পর বাংলাদেশের অন্যান্য সীমানেৱর মত চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমানেৱর পিলারগুলোতে ‘পাকিসৱান’ কেটে বাংলাদেশ করা হয়। কিনৱু ভোলাহাট উপজেলার চামুসা, গিলাবাড়ি ও চাঁনশিকারী সীমানেৱর ১২টি পিলারে ‘পাকিসৱান’ লেখা থেকে যায়। বিষয়টি নজরে এলে তা সংশোধনের জন্য তৎপরতা শুরম্ন করে বিজিবি। কিনৱু নানা জটিলতায় দীর্ঘদিনেও সংশোধনের প্রক্রিয়া সম্ভব হয়নি। বিষয়টি নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৯ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল রাশেদ আলী নতুন করে এ তৎপরতা শুরম্ন করেন।
এ ব্যাপারে বিএসএফ’র কাছে তিনি একাধিকবার চিঠি দেন। অবশেষে ভারতীয় সীমানৱরৰী বাহিনী বিএসএফের সম্মতিতে বুধবার দুপুর থেকে সীমানৱ পিলারগুলোর ভুল সংশোধনের কাজ শুরু করে বিজিবি। ৫৯ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল রাশেদ আলীর নেতৃত্বে বিজিবি সদস্যরা ভোলাহাটের চামুসা, গিলাবাড়ি ও চাঁনশিকারী সীমানেৱর ১২টি পিলারের ‘পাক’ শব্দের পরিবর্তে ‘বাংলা’ শব্দ প্রতিস’াপন করেন।
এসময় ভারতের মালদা জেলার ৮২ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের পৰে বিরেন্দ্র শিং, জি. কেরকাটা ও অরবিন্দ কুমারসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপসি’ত ছিলেন।

Leave a Reply