ট্রাম্পের সহযোগী ফ্লিনকে দেড় কোটি ডলার ‘দিতে চেয়েছিল তুরস্ক’

12/11/2017 1:04 am0 commentsViews: 11

এফএনএস ডেস্ক: তুর্কি ধর্মীয় নেতা ফেতুলস্নাহ গুলেনকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বহিষ্কার ও আঙ্কারার কাছে হসৱানৱরে সাহায্য করার জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাবেক সহযোগী মাইকেল ফ্লিনকে তুরস্ক দেড় কোটি ডলার দেওয়ার প্রসৱাব দিয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছে।
গত বছরের ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক সাবেক উপদেষ্টা ফ্লিন ও তার ছেলের সঙ্গে কথিত চক্রানেৱর বিষয়ে তুর্কি প্রতিনিধিদের কথা হয় বলে জানিয়েছে এনবিসি নিউজ ও ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।
মার্কিন নির্বাচনে রম্নশ হসৱক্ষেপ নিয়ে চলা বিচার বিভাগের বিসৱৃত তদনেৱ বিষয়টি খতিয়ে দেখার কথা জানানো হয়েছে বলে খবর বিবিসির।
তুরস্কের গত বছরের ব্যর্থ অভ্যুত্থানচেষ্টার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়াতে স্বেচ্ছা নির্বাসনে থাকা ফেতুলস্নাহ গুলেনকে দায়ী করেছে তুরস্ক। তাকে নিজের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ মনে করেন তুরস্কের বর্তমান প্রেসিডেন্ট রিজেপ তায়িপ এরদোয়ান।
তুর্কি কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথিত বৈঠকের সময় ফ্লিন ছিলেন ট্রাম্পের ‘ট্রানজিশন টিমের’ সদস্য। এরও একমাস পর তাকে নিরাপত্তা উপদেষ্টা করা হয়।
যুক্তরাষ্ট্রে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে এক বৈঠকের ব্যাপারে হোয়াইট হাউসকে বিভ্রানিৱকর তথ্য দেওয়ার অভিযোগে ফ্লিন ২৩ দিনের মাথায় পদত্যাগ করেন।
ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, স্পেশাল কাউন্সেল রবার্ট মুয়েলারের তদনেৱ গত বছরের মধ্য ডিসেম্বরে নিউ ইয়র্কে ফ্লিন ও তুর্কি কর্মকর্তাদের বৈঠকের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ওই বৈঠকে ফ্লিন প্রাইভেট জেটে করে গুলেনকে তুরস্কের ইমরালি দ্বীপের কারাগারে পাঠানোর কথা আলোচনা করেছিলেন বলে জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
ফ্লিন ও তার ছেলের আইনজীবী এই বিষয়ে তাৎক্ষণিক কোনো মনৱব্য করতে রাজি হননি।
ফ্লিনের পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ফ্লিন ইনটেল গ্রম্নপের এক মুখপাত্র এর আগে তুর্কি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বেআইনী কোনো কিছু আলোচনা হয়নি বলে দাবি করেছিলেন।
নিরাপত্তা উপদেষ্টার দায়িত্ব পাওয়ার পর গুলেনকে হসৱানৱরে ফ্লিন কোনো ধরণের চেষ্টা করেছিলেন কি না তদনৱ কর্মকর্তারা তাও খতিয়ে দেখছেন বলে জানিয়েছে এনবিসি।
গুলেনকে বহিষ্কার করে তাকে আঙ্কারার কাছে হসৱানৱরে এরদোয়ান বার বার আহ্বান জানিয়েছেন; সে কারণেই ফ্লিনের সঙ্গে তুর্কি কর্মকর্তাদের এ বৈঠক বলে ধারণা করছে বিবিসি।
চলতি বছরের মার্চে সিআইএ-র সাবেক পরিচালক জেমস উলজি প্রথম ফ্লিন ও তুর্কি কর্মকর্তাদের বৈঠকের কথা উন্মোচন করেন। ডিসেম্বরের আগে সেপ্টেম্বরেও তুর্কি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ সহযোগী ফ্লিনের কথা হয় বলে উলজি জানিয়েছিলেন।
এনবিসি ও ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়, ফ্লিন ও তুর্কি কর্মকর্তাদের বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রে আটক তুর্কি-ইরানি স্বর্ণ ব্যবসায়ী রেজা জারেবকে মুক্ত করার উপায় নিয়েও আলোচনা হয়েছিল। ইরানের ওপর দেওয়া যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করার দায়ে কারাদ- ভোগ করছেন জারেব।

Leave a Reply