হরতালের প্রভাব পড়েনি নগরীতে

13/10/2017 2:05 am0 commentsViews: 10

স্টাফ রিপোর্টার: জামায়াতে ইসলামীর ডাকা দেশব্যাপী হরতালের প্রভাব পড়েনি বিভাগীয় শহর রাজশাহীতে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা এই হরতালের ডাক থাকলেও রাজশাহীর কোথাও মাঠে ছিল না দলের নেতাকর্মীরা। তাই সকাল থেকেই রাজশাহীতে অন্য দিনের মতো স্বাভাবিক গতিতে যানবাহন চলাচল করেছে। শিৰা প্রতিষ্ঠানে চলেছে ক্লাশ। অফিসপাড়াতেও চলেছে দৈনন্দিন কার্যক্রম।
ফলে হরতালেও স্বাভাবিক ছিল রাজশাহীর প্রত্যাহিক জীবনযাত্রাও। নগরীর শিরোইলে ঢাকা বাস স্ট্যান্ড গিয়ে দেখা গেছে, সকাল থেকে নির্দিষ্ট সময়েই রাজধানী ঢাকাসহ নিজ নিজ গন্তব্যের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে দূরপালৱার বাস। চলেছে আন্তঃজেলা র্বটের বাস গুলোও। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নগরীর সাহেব বাজার জিরোপয়েন্ট, গোরহাঙ্গা রেলগেট, বর্ণালী মোড় ও শিরোইল বাস টার্মিনাল এলাকায় যানজট বাড়তে দেখা গেছে।
এদিকে রাজশাহী রেলস্টেশন থেকে সকালে ঢাকাগামী আন্তঃনগর ট্রেন সিল্কসিটি এঙপ্রেস, খুলনাগামী কপোতক্ষ এঙপ্রেস ও বরেন্দ্রসহ বিভিন্ন র্বটের আন্তঃনগর ও লোকাল মেইল ট্রেনও যথাসময়ে নিজ নিজ গন্তব্যের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। হরতালের কারণে নিরপদ বাহন হিসেবে ট্রেনে বাড়তি চাপও লক্ষ্য করা গেছে।
গতকাল হরতাল চলাকালে জেলার কোথাও পিকেটিংয়ের খবর পাওয়া যায়নি। জামায়াতের এই হরতালে নাশকতা না হলেও সকাল থেকেই সতর্ক অবস্থানে ছিল পুলিশ। নাশকতা এড়াতে শহরের গুর্বত্বপূর্ণ পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা ছিল। টহল ছিল র‌্যাবেরও। সাদা পোশাকে রাখা হয় গোয়েন্দা তৎপরতাও। এ কারণে এ দিন কোথাও কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।
রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার সরদার তমিজ উদ্দিন আহমেদ ও জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মোয়াজ্জেম হোসেন ভুঁঞা জানান, হরতালে যেকোন নাশকতা ঠেকাতে মহানগরী ও জেলার গুর্বত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশ, আর্মড পুলিশসহ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছিল। গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত এমন নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার ছিল।

Leave a Reply