মার্কিন বিমান হামলায় ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত আইএস সদস্য নিহত

13/10/2017 1:02 am0 commentsViews: 6

এফএনএস সেস্ক: মার্কিন বিমান হামলায় আইএসের ব্রিটিশ সদস্য স্যালি জোনস ও তার ১২ বছরের ছেলে নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।
প্রতিবেদনে বলা হয়, তার মৃত্যুর ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া গেলেও ঘটনাস্থলে গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা সম্ভব নয়। জোনস ‘দ্য হোয়াইট উইডো’ নামে পরিচিত ছিলো। সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ সক্রিয় ছিলেন তিনি। টুইটারে ২০টি অ্যাকাউন্ট ছিলো তার। তবে সামপ্রতিক সময়ে কোনও পোস্ট দেখা যায়নি।
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য সান জানায়, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থাকে জানিয়েছে যে জুনে সিরিয়া-ইরাক সীমানেৱ ড্রোন হামলায় জোনস নিহত হয়েছেন।
আরও বলা হয়, রাক্কা থেকে মায়াদিনে পালিয়ে গিয়েছিলেন জোনস। সেখানে কর্তৃত্ব হারানোর সঙ্গে সঙ্গে অনেক আইএস সেনা পালিয়ে গেছে।
পেন্টাগনও তার মৃত্যুর ব্যাপারে নিশ্চিত কিছু বলতে পারেনি। পেন্টাগনের মুখপাত্র মেজর আদ্রিয়ান রাঙ্কাইন গ্যালোওয়ে বলেন, ‘আমরা নিশ্চিত করে বলতে পারছি না। এমন তথ্য আমাদের কাছে নেই। তবে আমরা খতিয়ে দেখছি।’
ব্রিটিশ নাগরিক জোনস আগে সঙ্গীতের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। গ্রিনউইচে জন্ম নেওয়া জোনস বাস করতে দক্ষিণ পূর্ব লন্ডনে। সেখান থেকে কেন্টে যান তিনি। ২০১৩ সালে সিরিয়ায় যাওয়ার আগে ইসলাম গ্রহণ করেন তিনি। তার স্বামীও জুনাইদ হোসেনও ব্রিটিশ। তিনিও ২০১৫ সালে মার্কিন ড্রোন হামলায় প্রাণ হারান। হোসেনের মৃত্যুর পরই ব্রিটিশ মিডিয়া তাকে হোয়াইট উইডো বলে সম্বোধন করতে থাকে। এর আগেও সামান্থা লেদওয়াইটেকেও নামে এক ব্রিটিশকে এমন সম্বোধন করা হতে। হোসেন ও জোনস দুজনের বিরম্নদ্ধেই অভিযোগ ছিলো যে তারা যুক্তরাজ্যে সদ্য সংগ্রহ করতো। জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞার তালিকাতেও ছিলো জোনস। মার্কিন হিট লিস্টেও ছিলো তার নাম।

Leave a Reply