প্রধানমন্ত্রীর কাছে ১৮ দফা দাবি রাজশাহী রৰা সংগ্রাম পরিষদের

13/09/2017 1:06 am0 commentsViews: 20

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীর উন্নয়নে ১৮ দফা দাবি প্রধানমন্ত্রী বরাবর উপস্থাপন করবে রাজশাহীর সামাজিক সংগঠন রাজশাহী রৰা সংগ্রাম পরিষদ। আগামীকাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজশাহীতে আগমন উপলৰে এসব দাবিনামা তৈরি করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসব দাবি তুলে ধরা হবে।
গতকাল মঙ্গলবার রাজশাহী রৰা সংগ্রাম পরিষদের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বিশেষ জর্বরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন পরিষদের সভাপতি আলহাজ্‌্ব মো. লিয়াকত আলী।
সভায় প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে রাজশাহীর উন্নয়নে বিভিন্ন দাবি উপস্থাপন করা হয়। সভায় উত্থাপিত দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- রাজশাহীর উন্নয়নে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ও শিল্পকারখানায় গ্যাসের সরবরাহ নিশ্চিত করণ, নগরীর আবেদনকারীদের বাসাবাড়িতে গ্যাসের সংযোগ স্থাপন, গঙ্গা ব্যারেজ নির্মাণ প্রকল্প পূনঃ বিবেচনায় বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ, উত্তর রাজশাহী সেচ প্রকল্প বাস্তবায়ন, সিএনজি স্টেশন স্থাপন অন্যতম।
এছাড়া রাজশাহীর উন্নয়নে ১৮ দফার অন্যগুলো হলো, রাজশাহী-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন সার্ভিস ছাড়াও রাজশাহী থেকে চট্রগ্রাম সরাসরি ট্রেন সার্ভিস চালু করণ, আব্দুলপুর-রাজশাহী-রহনপুর ডুয়েল গেজ রেললাইন নির্মাণ, সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা সেবার মানোন্নয়ন, ভুখ- রৰায় স্থ্থায়ী নদী তীর প্রতিরৰা, কৃষিভিত্তিক ইপিজেড প্রতিষ্ঠা, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা, নতুন করে নগরীর একাধিক মাধ্যমিক স্কুল সরকারিকরণ, ক্রিকেট টেস্ট ভেন্যু স্থাপন, পদ্মা নদীর চরে সরকারিভাবে অর্থনৈতিক জোন স্থাপন, আম, টমেটোসহ অন্যান্য ফল সংরৰণে কোল্ড স্টোারেজ স্থাপন এবং নারী শিল্পোদ্যোক্তাদের বিশেষ ঋণ সহায়তার দাবি রয়েছে। এছাড়া চাঁপাইনবাগঞ্জের সঙ্গে রাজশাহীর নীবিড় যোগাযোগ স্থাপনের জন্য একটি সাটল ট্রেনেরও দাবি করেন বক্তারা। এছাড়া রাজশাহীর পদ্মা নদীর ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে নদীপথে পণ্য সরবরাহ ব্যবস্থার দাবির কথাও উলেৱখ করেন রাজশাহী রৰা সংড়গ্রাম পরিষদের নেতৃবৃন্দ।
রাজশাহী রৰা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি মো: লিয়াকত আলী বলেন, রাজশাহীর উন্নয়নে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ প্রয়োজন। এটি নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া শিল্পকারখানায় গ্যাসের সরবরাহ নিশ্চিতকরণ ও নগরীর আবেদনকারীদের বাসাবাড়িতে গ্যাসের সংযোগ স্থাপন করতে হবে।
রাজশাহী রৰা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান বলেন, ভূ-উপরিস্থিত পানির ব্যবহার ছাড়া বরেন্দ্র অঞ্চলের কৃষি বিপৱব ও এ অঞ্চলের মানুষের আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নয়ন সম্ভব নয়। তিনি আরো বলেন, উলেৱখিত দাবিতে রাজশাহীর মানুষকে সংঙ্গে নিয়ে দীর্ঘদিন আন্দোলন সংগ্রাম করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বরাবর একাধিকবার স্মারকলিপিও প্রদান করা হয়েছে। তবে দীর্ঘদিনেও দাবিগুলো পূরণ হচ্ছে না।
সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী রৰা সংগ্রাম পরিষদের সাংগাঠনিক সম্পাদক দেবাশিষ প্রামাণিক দেবু, সহসভাপতি আলহাজ্ব হার্বনার রশিদ, কল্পনা রায়, অ্যাডভোকেট এন্তাজুল হক বাবু, অ্যাডভোকেট অঙ্কুর সেন, সেলিনা বেগম, মিনহাজ উদ্দিন মিন্টু, সমাজ সেবক নিযাম উদ্দিন, শাহীনা বেগম, সাগরিকা বেগম, রাশেদা বেগম, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, বজলে রেজবি আলম হাসান মুঞ্জিল, নুর্বল হক, আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

Leave a Reply