সাংবাদিককে গুলি করে হত্যায় ভারতজুড়ে বিক্ষোভ

08/09/2017 1:06 am0 commentsViews: 11

সোনালী ডেস্ক: ভারতের হিন্দুত্ববাদের কট্টর সমালোচক জ্যেষ্ঠ নারী সাংবাদিক গৌরী লংকেশ (৫৫) খুনের ঘটনায় দেশজুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার উদ্বিগ্ন মানুষ ও বিভিন্ন পত্রিকার সাংবাদিকেরা গৌরী লংকেশ হত্যার ঘটনাকে ভিন্নমতাবলম্বীদের প্রতি চূড়ান্ত অসহিষ্ণুতারই বহিঃপ্রকাশ বলে উলেৱখ করেছেন।
কর্ণাটক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সিদারামাইয়া এই হত্যাকা-কে ‘গণতন্ত্র হত্যা’ বলে উলেৱখ করেছেন। ইন্ডিয়ান উইমেন্স প্রেস কর্পস (আইডব্লিউপিসি) গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছে, একজন সাংবাদিককে ‘থামিয়ে দেওয়া’ ভারতের গণতন্ত্রের জন্য ভয়ানক বার্তা বহন করে।
রাজ্যের রাজধানী বেঙ্গালুর্বর রাজারাজেশ্বরী নগরে গত মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে সাংবাদিক গৌরী লংকেশকে তাঁর নিজ বাড়ির বাইরে খুব কাছ থেকে গুলি করে হত্যা করে দুষ্কৃতকারীরা। বাইকে চড়ে হানা দেওয়া তিন আততায়ী মোট সাতটি গুলি ছোড়ে ওই সাংবাদিককে লক্ষ্য করে।
বাড়ির ছাদে যাওয়ার সিঁড়ি থেকে পুলিশ রাতেই তাঁর মরদেহ উদ্ধার করে। ভবনের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশ একজনকে শনাক্ত করেছে। পুলিশের সূত্র জানিয়েছে, সন্দেহভাজন ওই ব্যক্তি হেলমেট পরিহিত ছিলেন। সূত্র আরও জানায়, ঘটনার তদন্তে তিনটি দল কাজ করছে।
সাংবাদিক খুনের এই ঘটনার প্রতিবাদে রাজ্যের বিভিন্ন শহর সাংবাদিকেরা প্রতিবাদ শোভাযাত্রা নিয়ে বেঙ্গালুর্বর প্রাণকেন্দ্রে এক সমাবেশে মিলিত হন। তাঁরা গৌরী লংকেশের মতো একজন প্রথিতযশা সাংবাদিক হত্যাকা-ের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, প্রচলিত ধ্যান-ধারণার বিরোধিতা করা এবং হিন্দুত্ববাদের সমালোচনা করার খেসারত দিতে হয়েছে গৌরীকে।
গৌরী লংকেশ বাম ঘরানার লংকেশ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন। তাঁর বাবা ৪০ বছর আগে সাপ্তাহিক এই ট্যাবলয়েট পত্রিকা চালু করেন। এই পত্রিকায় প্রায়ই তিনি নকশালপন’ীদের পুনর্বাসনের পক্ষে এবং বিভেদ সৃষ্টিকারী রাজনীতির বির্বদ্ধে লিখতেন। দক্ষিণপন’ী রাজনীতির বিরোধিতায় বারবার সরব হয়েছেন বলেই তাঁকে খুন করা হলো বলে গোটা ভারতের সাংবাদিক মহল মনে করছে।

Leave a Reply