মিয়ানমারে রোহিঙ্গা-নিপীড়নের বিরম্নদ্ধে আরব লীগের নিন্দা

08/09/2017 1:02 am0 commentsViews: 4

এফএনএস আনর্ৱজাতিক: মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর সংঘটিত সহিংস কর্মকা-ের বিরম্নদ্ধে তদনৱ করার জন্য দেশটির কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে আরব লীগ। বুধবার (৬ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে আরব লীগের মহাসচিব আহমেদ আবুল ঘিত এ আহ্বান জানান। আরব আমিরাতভিত্তিক সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমস এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের বিরম্নদ্ধে সহিংসতার নিন্দাও জানিয়েছেন আবুল ঘিত।
বিবৃতিতে আরব লীগ দাবি করেছে, মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ যেন তাদের দায়বোধ করে এবং যত দ্রম্নত সম্ভব মুসলিমদের বিরম্নদ্ধে সহিংসতার অবসান ঘটায়। রোহিঙ্গাদের বিরম্নদ্ধে সংঘটিত সহিংসতার তদনৱ করে দোষীদের বিচারের মুখোমুখি করার জন্য মিয়ানমার কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানিয়েছেন ঘিত।
উলেস্নখ্য, সামপ্রতিক ক্লিয়ারেন্স অপারেশনের লক্ষ্যে রাখাইন রাজ্যে সেনা মোতায়েন শুরম্নর কয়েকদিনের মাথায় ২৪ আগস্ট ২৪টি পুলিশ চেকপোস্টে ‘বিদ্রোহী রোহিঙ্গা’দের সমন্বিত হামলা এবং রাতভর সংঘর্ষে বিদ্রোহী-পুলিশ-সেনাসদস্য মিলে অনৱত ১০৪ জন নিহত হয়েছে বলে জানায় সেনাসূত্র। হামলার পর থেকে রোহিঙ্গাবিরোধী অভিযান জোরদার হয়।মিয়ানমারে সামপ্রতিক সেনা অভিযান শুরম্নর পর থেকে উত্তর-পশ্চিম রাখাইন রাজ্যে ৪শ জন নিহত হয়েছে। মিয়ানমারের ডি-ফ্যাক্টো সরকারের সেনাবাহিনী নিহত ৪শ জনের মধ্যে ৩৭০ জনকে সন্ত্রাসী বলে উলেস্নখ করেছে। এর আগে গত বছরের অক্টোবরে সংঘটিত সামরিক অভিযানের সময়ে জাতিসংঘের তরফ থেকে মিয়ানমারের তীব্র নিন্দা জানানো হয়। সেখানকার পরিস্থিতিকে তারা আখ্যা দেয় ‘জাতিগত নিধনযজ্ঞ’ হিসেবে। জাতিসংঘ মিয়ানমারের বিরম্নদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগও তুলেছিল। আর রাখাইন রাজ্যের সামপ্রতিক সহিংসতায় ৪০০ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে রাখাইন-পরিস্থিতিকে মানবিক বিপর্যয়ের ভয়াবহতা বলে আখ্যা দিয়েছে সংস্থাটি। শানিৱতে নোবেলজয়ী সু চি এই ইস্যুটির সমাধান করতে না পারায় বিশ্বব্যাপী অনেক সমালোচিত হয়ে আসছেন। রাখাইন রাজ্যের নতুন পরিস্থিতি নিয়ে নীরব ভূমিকা পালন করছিলেন তিনি। অবশেষে এরদোয়ানের সঙ্গে টেলিফোন আলাপে প্রতিক্রিয়া জানালেন সু চি।

Leave a Reply