হুমকির মুখে রাজশাহী শহর রৰা বাঁধ

15/07/2017 1:04 am0 commentsViews: 19

কয়েকদিনের বর্ষণ আর উজানের ঢলে দেশের উত্তরাঞ্চলের অন্যান্য নদনদীর মত পদ্মার পানিও দ্রম্নত বাড়তে শুরম্ন করেছে। গত কয়েকদিনে বাড়তে বাড়তে পানির উচ্চতা এসে দাঁড়িয়েছে বিপদসীমার ৩ দশমিক ৭২ মিটার নিচে। এ ভাবে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে এ বছর রাজশাহীতে পদ্মার পানি বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে বলে সংশিস্নষ্টরা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। এর ফলে রাজশাহী শহর রৰা বাঁধ নিয়েও দুশ্চিনৱা দেখা দিয়েছে।
গত বছর পদ্মার প্রবল স্রোতে বাঁধে ফাটল দেখা দেয়ার কথা মানুষ ভুলে যায়নি। তখন জিও ব্যাগ ফেলে ভাঙন রোধ করা গিয়েছিল। পানি কমে আসার পর যথারীতি সে কথা ভুলে যাওয়ার প্রমাণ মেলে বাঁধ মেরামতে কোনো উদ্যোগ না নেয়ায়। এবারে পানি বৃদ্ধিতে আবারও শহর রৰা বাঁধের শ্রীরামপুর টি-গ্রোয়েনে নতুন করে ফেলা হচ্ছে বালু ভর্তি জিও ব্যাগ। গত ২৪ ঘন্টায় ৩১ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধির খবর পাওয়া গেছে। পানি বৃদ্ধির ধারা অব্যাহত থাকলে বালির ব্যাগে শেষ রৰা হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় সৃষ্টি হওয়াই স্বাভাবিক।
রাজশাহীতে পদ্মার পানির বিপদসীমা হচ্ছে ১৮ দশমিক ৫০ মিটার। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পানির উচ্চতা ছিল ১৪ দশমিক ৭৮ মিটার। গত কয়েকদিনে ধাপে ধাপে পানির উচ্চতা যেভাবে বেড়েছে তা উদ্বেগজনক না বলে পারা যায় না। রাজশাহীতে সর্বশেষ পদ্মার পানি বিপদসীমা অতিক্রম করেছিল ২০১৩ সালের ৭ সেপ্টেম্বর। তখন পানির উচ্চতা দাঁড়িয়েছিল ১৮ দশমিক ৭০ মিটার। গতবছর আগস্টের শেষ দিকে পানি প্রবাহ উঠেছিল সর্বোচ্চ ১৮ দশমিক ৪১ মিটার। তখন বিভিন্ন পথে শহরে পানি ঢুকতে শুরম্ন করেছিল। কিন’ এরপর পানি কমতে থাকায় স্বসিৱ ফিরে এসেছিল।
গত বছর বালির বসৱা ফেলে শহর রৰা বাঁধের ফাটল রোধ করার পর বাঁধ মেরামতে কিছুই করা হয়নি। স’ানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের সংশিস্নষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বাঁধ সংস্কারের জন্য সোয়া দুই কোটি টাকা চাওয়া হয়েছিল মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে। পাওয়া গেছে মাত্র ৫০ লাখ টাকা। যা দিয়ে জিও ব্যাগ ফেলার কাজ চলছে। ফলে পানি বাড়লে বাঁধ রৰা নিয়ে আশঙ্কা উড়িয়ে দেয়া যায় না।
এবারে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে নজিরবিহীন বৃষ্টিপাত ও বন্যার পূর্বাভাস দেয়ার খবর আগেই জানা গেছে। এর মধ্যেই আসাম-অরম্নণাচল-পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলে প্রবল বন্যা সব কিছু ভাসিয়ে নেয়ার খবর পাওয়া গেছে। ফলে আমাদের এখানে উজানের ঢলে নদ-নদী উত্তাল হাওয়ার আশঙ্কা অস্বীকার করা যায় না। এ অবস’ায় পদ্মায় পানির উচ্চতা বিপদজনক হয়ে উঠলে ৰতিগ্রসৱ শহর রৰা বাঁধ তা কতটুকু সামলাতে পারবে সেটা নিশ্চিত করে বলা যায় না। এখনই জরম্নরি ভিত্তিতে বাঁধ রৰার পদৰেপ নেয়া না হলে বিপদ ঘটা অস্বাভাবিক নয়। বিষয়টি সংশিস্নষ্টদের কাছে গুরম্নত্ব পাবে বলেই আমাদের ধারণা।

Leave a Reply