নওগাঁ ও সিরাগঞ্জে বজ্রপাতে স্কুলছাত্রসহ ৬ জনের মৃত্যু

14/05/2017 1:09 am0 commentsViews: 41

সোনালী ডেস্ক: নওগাঁ ও সিরাজগঞ্জে বজ্রপাতে স্কুলছাত্রসহ ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। বাঘায় ২টি গরু মারা গেছে।
বাঘা প্রতিনিধি জানান, উপজেলার চকরাজাপুর ইউনিয়নের কালিদাশখালি গ্রামের ওয়াহাব আলী  সেখ এক সপ্তাহ আগে গরু দু’টি কিনেছিলেন ১ লাখ ৮৫ হাজার টাকায়।  ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল আযম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মেঘের গর্জনের সময় তার ৫টি গরুর মধ্যে ৩টি গরু গোয়ালে তুলেছিলেন। বাইরে থাকা অপর দুটি গরু বজ্রপাতে মারা যায়।
নওগাঁ প্রতিনিধি জানান, নওগাঁর সদর উপজেলা, আত্রাই ও মহাদেবপুর উপজেলায় বজ্রপাতে স্কুলছাত্রসহ পাঁচ ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। শনিবার দুপুরে  মুষলধারে বৃষ্টির মধ্যে বজ্রপাতের এ ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তিরা হলেন, নওগাঁ সদর উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়নের ফতেপুর গ্রামের আফজাল হোসেন (৫৫), দুবলহাটি ইউনিয়নের সরিজপুর গ্রামের রফিকুল ইসলাম (২৯), মহাদেবপুর উপজেলার রাইগা ইউনিয়নের বিরমগ্রামের আরাফাত হোসেন (৮), রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার খয়েরহাট বাজার গ্রামের রতন ইসলাম (২০) ও আত্রাই উপজেলার বিসা ইউনিয়নের দর্শনগ্রামের মিলন ইসলাম (২২)। স’ানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে বৃষ্টির মধ্যে মাঠে নিজ ৰেতে ধান কাটছিলেন সদর উপজেলার ফতেপুর গ্রামের কৃষক আফজাল হোসেন। এ সময় বজ্রপাত হলে তিনি ঘটনাস’ালেই মারা যান। সদর উপজেলার সরিজপুর গ্রামের রফিকুল ইসলাম বৃষ্টির সময় মাঠে গর্ব আনতে গেলে বজ্রপাতে তিনি নিহত হন। রফিকুল সরিজপুর গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে। নওগাঁ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তোরিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। আত্রাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুদ্দোজা আত্রাই উপজেলা দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি জানান, নওগাঁর মহাদেবপুরে শনিবার বজ্রপাতে ৩য় শ্রেণির ছাত্র আরাফাত রহমানের  মৃত্যু হয়েছে। স’ানীয়  ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুর্বল আলম মঞ্জু জানান, বিরমগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চলাকালে হালকা বৃষ্টি হচ্ছিল। একই গ্রামের আশাদুল ইসলামের পুত্র  আরাফাত রহমান (৯) স্কুল মাঠে কড়ই গাছের নিচে দাঁড়ালে বজ্রপাতে তার মৃত্যু হয় । আরাফাত রহমান বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির ছাত্র।
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, শনিবার দুপুরে ব্রজপাতে উজ্জল (৪০) নামে এক ধান কাটা শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ২ জন শ্রমিক আহত হয়েছেন। জানা যায়, উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের মনোহরপুর গ্রামের গরিবুল্লার ছেলে শহিদুল ইসলাম উজ্জল গ্রামের লোকজনের সাথে বোরো ধান কাটতে লালুয়ামাঝিড়া গ্রামের মোন্নাফ হোসেন কালুর বাড়িতে আসে। শনিবার দুপুরে বৃষ্টির সময় মাঠ থেকে ধান নিয়ে বাড়িতে আসার পথে তার উপর ব্রজপাতের ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস’লেই তিনি মারা যান। এ ঘটনায় ফরিদ (৩৮) ও নবীর (৪২) ২ জন ধান কাটা শ্রমিক আহত হয়েছে। আহতদের তাড়াশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Leave a Reply