কালবিলম্ব না করে রাবির স’বিরতা দূর করম্নন

৩০/০৪/২০১৭ ১:০৪ পূর্বাহ্ণ০ commentsViews: 60

৩৩ হাজার শিৰার্থীর উচ্চ শিৰা প্রতিষ্ঠান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) স্বাভাবিক কার্যক্রম স’বির হয়ে আছে দীর্ঘ ৪০ দিন। বিষয়টি নিয়ে পত্র-পত্রিকায় লেখালেখি কম হয়নি। কিন’ ঘুম ভাঙছে না সংশিস্নষ্টদের। ফলে ভোগানিৱর শেষ নেই শিৰক-শিৰার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের । কবে কুম্ভকর্ণের ঘুম ভাঙবে সে অপেৰায় থাকতে হচ্ছে সবাইকে।
গত ১৯ মার্চ মেয়াদ শেষ হওয়ার কারণে রাবির ভিসি ও প্রোভিসি পদ শূন্য হয়। তখন শিৰা মন্ত্রণালয়ের সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তা দ্রম্নতই এই শূন্যতা পূরণের কথা জানিয়েছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) চেয়ারম্যানও বলেছিলেন একই কথা। অথচ ৪০ দিনেও কিছু হলো না। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়টির স্বাভাবিক কার্যক্রম মুখ থুবরে পড়েছে। প্রশাসনিক ও শিৰা বিষয়ক কাজের ফাইলের সৱূপ জমেছে ভিসির টেবিলে। প্রায় সাড়ে পাঁচশ ফাইল আটকে আছে তার স্বাৰরের অপেৰায়। এর মধ্যে উন্নত চিকিৎসা ও উচ্চ শিৰার জন্য দেশের বাইরে যাবার প্রায় ৪০টি আবেদন, ১৭ বিভাগের ফল প্রকাশ, পরীৰা কমিটি গঠন, সনদপত্র উত্তোলন, ভর্তি কার্যক্রম, ফিনান্স কমিটি, সিন্ডিকেট, অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল সভা, নিয়োগ কার্যক্রমসহ কত না কাজ আটকে আছে ! পাঁচশ’র বেশি সনদপত্র উত্তোলনের আবেদন ও সাড়ে চার’শ সনদ পুরোপুরি তৈরি অবস’ায় পড়ে আছে ভিসির স্বাৰরের অপেৰায়। এ সবের কারণে শিৰা শেষ করে চাকরির আবেদন করতে পারছেন না অনেক শিৰার্থী। আর উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে না পেরে পঙ্গু হতে চলেছেন এক অধ্যাপক। এত দুর্ভোগ -দুর্দশা শুধুমাত্র সময়মত ভিসি-প্রোভিসি নিয়োগ না হওয়ার কারণে।
নিয়ম অনুযায়ী এই দুই শীর্ষ পদে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি। তিনিই দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য। এ ৰেত্রে সহায়তা করে শিৰা মন্ত্রণালয়। প্রশাসনের শীর্ষ ৰেত্রে এমন দীর্ঘসূত্রতা সত্যি বিস্ময়কর।
সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো দেখভালের দায়িত্ব পালনকারী প্রতিষ্ঠান ইউজিসি চেয়ারম্যানও হতাশা ব্যক্ত করে বলেছেন, উপাচার্য পদ একদিনও শূন্য রাখা উচিৎ নয়। তারপরও ভয়াবহ পরিসি’তি সৃষ্টির কারণ সম্পর্কে নিজের অজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। আর বিদগ্ধজনেরা বিষয়টিকে সংশিস্নষ্ট দপ্তরগুলোর চরম ব্যর্থতা বলেই উলেস্নখ করেছেন। শিৰা খাতের সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠানের ৰেত্রে এই ব্যর্থতা কেন সে প্রশ্ন তুলে এখন আর সময় ৰেপণের সুযোগ নেই। আমরা কালবিলম্ব না করে রাবির শীর্ষ দুই পদ পূরণে ব্যবস’া গ্রহণের দাবি জানাই।

Leave a Reply